বাঙ্গালীর নেতা বঙ্গবন্ধু বিশ্বে নেতায় পরিণত হয়েছেন : অধ্যক্ষ ডিসি কলেজ

thecm-12.jpg

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর আমরা স্বাধীনতা লাভ করেছি। কিন্তু স্বাধীনতার পূর্ণতা এসেছে, স্বাধীন বাংলার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশে প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে। বঙ্গবন্ধুর এ প্রত্যাবর্তন ছিল, সবার আকাঙ্খিত এবং বিশ্বের ইতিহাসে বিরল ইতিহাস সৃষ্টিকারী ঘটনা। বিশ্বনেতাদের আকুন্ঠ সমর্থন তাঁর প্রত্যাবর্তনকে সহজ করে দিয়েছিলো, বিশ্ব মর্যদায় উপনীত করেছিলো বাঙ্গালি জাতিসত্ত্বা। বাঙ্গালির নেতা হতে বঙ্গবন্ধু সে সময় একজন বিশ্ব নেতায় পরিণত হয়েছিলেন।

রোববার ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে কক্সবাজার ডিসি কলেজ Online -এ Zoom apps এর মাধ্যমে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ ইব্রাহিম হোসেন একথা বলেন।

কলেজের ইংরেজি বিষয়ের প্রভাষক তাসনিম ইসলাম এর নান্দনিক উপস্থাপনায় উক্ত আলোচনা সভায় গণিত বিভাগের প্রভাষক কে.এম আহসান উল্লাহ, জীববিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মুমতাহেনা, জীববিজ্ঞান বিভাগের প্রদর্শক মোহাম্মদ কায়সার উদ্দীন অংশ নেন। এছাড়া কলেজ-এর ১ম বর্ষের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের পক্ষে সুজয় চক্রবর্তী ও মোঃ মহিউদ্দিন এবং ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী নিলয় ধর বঙ্গবন্ধুর বর্ণাঢ্য জীবন এবং ১৯৭১ সালের ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন নিয়ে চমৎকার ও তথ্য সমৃদ্ধ বক্তব্য উপস্থাপন করে।

বক্তাগণ ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন এর পূর্ব পর্যন্ত অর্থাৎ ১৯৭১ সালের ৮ জানুয়ারি পাকিস্তানের কারাগার থেকে বের হওয়া থেকে শুরু করে বাংলাদেশে পৌঁছা পর্যন্ত ঘটনার ধারাবাহিক বর্ণনা দেন।

সভাপতির বক্তব্যে ডিসি কলেজ-এর অধ্যক্ষ মোঃ ইব্রাহিম হোসেন বিনম্র চিত্তে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর দূরদর্শী নেতৃত্ব ও আত্মত্যাগের কথা স্মরণ করে আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু মিশে আছেন বাংলার আকাশে, সাগর আর বাতাসে, বাংলার প্রকৃতি আর আপামর বাঙ্গালির মানসপটে। বঙ্গবন্ধুকে কখনো বাঙ্গালীর হৃদয়ের মনিকোঠা থেকে সরানো যাবেনা।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top