যুক্তরাষ্ট্র–যুক্তরাজ্যের করোনার টিকা ইরানে নিষিদ্ধ

prothomalo-bangla_2020-10_5e838bb2-0876-4349-936e-7c3e42eeed9e_Iran.jpg

যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য থেকে করোনার টিকা কেনায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ইরান। দেশটি সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি টিকা আমদানি নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দেন। শুক্রবার টেলিভিশনে প্রচারিত এক বক্তৃতায় খামেনি বলেন, পশ্চিমা দেশে তৈরি টিকায় আস্থা পাচ্ছেন না।

সংবাদমাধ্যম আল–জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় ওপরের দিকেই আছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। দুটি দেশে এরই মধ্যে ফাইজার–বায়োএনটেকের তৈরি টিকার ব্যবহার শুরু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র মডার্নার টিকার ব্যবহারও করছে। ওদিকে যুক্তরাজ্য অক্সফোর্ড–অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনার টিকার ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে। কিছু দাতব্য প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ফাইজারের তৈরি করোনার টিকা দেশে আনার পরিকল্পনা করছিল ইরান। সেই পরিকল্পনা এবার বাতিল করে দিলেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা খামেনি।

খামেনি বলেছেন, ‘যদি আমেরিকানরা একটি টিকা তৈরিই করতে পারত, তবে তাদের দেশে করোনা পরিস্থিতি এত খারাপ হতো না। যদি ফাইজারের কারখানায় টিকা তৈরিই হয়ে থাকে, তবে তা নিজেরা না নিয়ে কেন আমাদের দিতে চাইছে? তাদের আগে টিকা নেওয়া উচিত, যাতে করোনায় মৃত্যুর পরিমাণ বেশি না হয়।’

যুক্তরাজ্যের বিষয়েও একই বক্তব্য দেন খামেনি। তিনি বলেন, এসব টিকায় তাঁর আস্থা নেই। তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, এসব টিকা ইরানে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য পাঠানোর চেষ্টা চলছে বলে তিনি মনে করেন।

ইরানের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি করোনার টিকার দেড় লাখ ডোজ আমদানির পরিকল্পনা করেছিল। মূলত দাতব্য প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিদের সহায়তায় এসব টিকা কেনার কথা হচ্ছিল। তবে সর্বোচ্চ নেতার বক্তব্যে এখন তা থামিয়ে দিতে হচ্ছে।

ইরানের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির পক্ষে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সর্বোচ্চ নেতার বক্তব্য অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি ঠিক-বেঠিক নির্ধারণ করে দিয়েছেন। তাঁর বক্তব্য মেনেই করোনার টিকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top