টেকনাফের সন্তান মোহাম্মদ আলী বিচারপতি হিসাবে শপথ নিলেন ; সাথে আরো ১৮ জন

1590837350_IMG_20200530_171337.png.jpg

আই হাসান

সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে ১৮ জন অতিরিক্ত বিচারককে স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন কক্সবাজার জেলার কৃতি সন্তান টেকনাফের মোহাম্মদ আলী।সংবিধানের ৯৫ অনুচ্ছেদের ক্ষমতাবলে রাষ্ট্রপতি প্রধান বিচারপতির সঙ্গে পরামর্শক্রমে এ নিয়োগ দেন।

গতকাল শুক্রবার এই নিয়োগ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। শপথ গ্রহণের তারিখ থেকে তাঁদের নিয়োগ কার্যকর হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে ২০১৮ সালের ৩০ মে সংবিধানের ৯৮ অনুচ্ছেদের ক্ষমতাবলে রাষ্ট্রপতি দুই বছরের জন্য হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত বিচারক হিসেবে তাঁদের নিয়োগ দেন। পরদিন শপথ গ্রহণের মধ্য দিয়ে তাদের ওই নিয়োগ কার্যকর হয়।

হাইকোর্ট বিভাগের স্থায়ী বিচারপতি হিসাবে শপথ গ্রহন করা মোহাম্মাদ আলী কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার টেকনাফ সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও মৌলভী পাড়ার বাসিন্দা মরহুম আনোয়ার মিয়ার পুত্র।তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে আইন বিষয়ে কৃতিত্বের সাথে স্নাতক উত্তর ডিগ্রি লাভ করেন । বিচারপতি মোহাম্মাদ আলীর সহধর্মীনিও বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী। বিচারপতি হিসাবে নিয়োগ পাওয়ার আগে তিনি সুপ্রিম কোর্টের একজন আউনজীবী হিসাবে কর্মরত ছিলেন।

বিচারপতি মোহাম্মদ আলী কক্সবাজার জেলা থেকে সর্বোচ্চ বিচারালয় হাইকোর্টে বিচারপতি হিসাবে নিয়োগ পাওয়া দ্বিতীয় ব্যক্তি। এরআগে রামু উপজেলার জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের নোনাছড়ি গ্রামের মরহুম আমিরুল কবির চৌধুরী বিচারপতি হয়ে সর্বশেষ সুপ্রিম কোর্টের আপীল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।

স্থায়ী নিয়োগ পাওয়া কক্সবাজারের  মোহাম্মদ আলীসহ ১৮ বিচারক হলেন, মো. আবু আহমেদ জমাদার, এ এস এম আব্দুল মোবিন, মো. মোস্তাফিজুর রহমান, ফাতেমা নজীব, মো. কামরুল হোসেন মোল্লা, এস এম কুদ্দুস জামান, মো. আতোয়ার রহমান, খিজির হায়াত, শশাঙ্ক শেখর সরকার, মহি উদ্দিন শামীম, মো. রিয়াজ উদ্দিন খান, মো. খায়রুল আলম, এস এম মনিরুজ্জামান, আহমেদ সোহেল, সরদার মো. রাশেদ জাহাঙ্গীর, খোন্দকার দিলীরুজ্জামান ও কে এম হাফিজুল আলম।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top