বাংলাদেশে প্রথম করোনার জিনোম সিকোয়েন্স

Presentation1-49.jpg

দিসিএম ডেস্ক।।

বাংলাদেশে প্রথমবারের মত  করোনা ভাইরাসের জিনোম সিকোয়েন্স হয়েছে। আজ মঙ্গলবার (১২ মে) করোনা ভাইরাসের জিনম তথ্য জমা রাখার সবচেয়ে বড় ডেটাবেজ জার্মানি সংস্থা জিআইএসএইড-এ বাংলাদেশ থেকে করোনাভাইরাস এর প্রথম জিনোম সিকোয়েন্স তথ্যটি জমা দিয়েছে চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশন। তারাই সর্বপ্রথম এ জিনোম সিকোয়েন্স করেছে। এ জিনোম সিকোয়েন্সের মাধ্যমে ভাইরাসটির গতি প্রকৃতি নির্ণয় করতে পারবেন গবেষকরা।

 

বাংলাদেশে প্রথম করোনার জিনোম সিকোয়েন্স

 

জানা গেছে, শিশু স্বাস্থ্য গবেষণা ফাউন্ডেশনের (সিএইচআরএফ) নির্বাহী পরিচালক ড. সমীর কুমার সাহার নেতৃত্বাধীন প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে সিকোয়েন্সটি জমা দিয়েছেন সেজুঁতি সাহা। এই গবেষণায় তার সঙ্গী ছিলেন রলি মালাকার, সাইফুল ইসলাম সজীব, হাসানুজ্জামান, হাফিজুর রহমান, শাহিদুল ইসলাম, জাবেদ বি আহমেদ এবং মাকসুদ ইসলাম।

গ্লোবাল ইনিসিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জা ডেটা (জিআইএসএইড) এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, গত ১৮ এপ্রিল এই গবেষণাদলটি ২২ বছর বয়সী এক নারীর রোগীর কাছ থেকে ভাইরাসের নমুন সংগ্রহ করেন। এরপর ইল্লুমিনা আইসেক ১০০ প্রযুক্তির মেশিনে সংগৃহিত নমুনার ওপর গবেষণা করে ভাইরাসটির জিনোম তথ্য খোঁজা শুরু করেন।

উল্লেখ্য, এ পর্যন্ত জিআইএসএইড-এর ডেটাবেজে করোনা ভাইরাসের ওপর বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ২০ হাজার ৭৯৯টি ভাইরাসের জীবনরহস্য জমা পড়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top