পাহাড়তলী সমিতিতে জমানো টাকা ফেরত চাওয়ায় হত্যার হুমকি, ২২ লাখ টাকা আত্মসাৎ

9497_me.jpg

দূর্দিনের আসায় সমিতিতে জমানো টাকা ফেরত চাইলে উল্টো হত্যার হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন কক্সবাজার শহরের পাহাড়তলী জনকল্যাণ বহুমুখি সমবায় সমিতির সদস্যরা। সদস্যদের দাবী ২১৩ জন সদস্যে জমানো প্রায় ২২ লাখ টাকা আগেই আত্মসাৎ করেছে সমিতির সভাপতি শামসুল আলম ও ক্যাশিয়ার মোবারক। করোনা পরিস্থিতির এই সময়ে নিজের জমানো টাকা ফেরত চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সমিতির গরীব অসহায় সদস্যরা। ১০ মে বেলা সাড়ে ১১ টায় শহরের পাহাড়তলীতে সমিতির প্রায় ১০০ সদস্য উপস্থিত হয়ে সংবাদ সম্মেলনে জানান,৫ বছর আগে পাহাড়তলী জনকল্যান বহুমুখি সমবায় সমিতি গঠন করে,সেখানে আমরা প্রতি মাসে ৩০০ টাকা এবং প্রতি ৩ মাস অন্তর ১০০০ টাকা করে জমিয়েছিলাম। প্রথম বছর ভাল ভাবে চলেলও পরের বছর থেকে সমিতির টাকা দিয়ে জমি কিনে টমটম কিনে অনেক লাভ করলেও কোন টাকা সদস্যদের দেওয়া হয়নি। বরংআমাদের আসল টাকাও আমাদের ফেরত দিচ্ছেনা। এ সময় জহুরা বেগম ও শাকেরা বেগম বলেন,আমাদের স্বামী নুরুল কবির সমিতির সদস্য ছিল উনি মারা যাওয়ার পরও আমাদের টাকা দিচ্ছেনা। এখন টাকা ফেরত চাইলে উল্টো মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে ক্যাশিয়ার এবং তার সন্ত্রাসী বাহিনিরা। সমিতির সদস্য মোঃ ইসমাঈল বলেণ,আমার জমানো ৩২ হাজার টাকা সমিতিতে আছে ২ বছর ধরে ফেরত চাইছি কিন্ত দিচ্ছেনা। দেশের করোনা পরিস্থিতির কারনে ঘরে খাওয়ার চাল নেই এর পরও টাকা চাইলে গালিগালাজ করে। মুজিবুর রহমান বাবুল, রাসেল ও ডাঃ আবুল হোসাইন বলেন, সমিতিতে বর্তমানে প্রায় ২২ লাখ টাকা থাকার কথা কিন্তু ব্যাংকে টাকা আছে মাত্র ৬,৮১৭ টাকা। বাকি টাকা সভাপতি এবং ক্যাশিয়ার নিজেরা ইউনিয়ন ব্যাংক হিসাবে নাম্বার ১২১০০০০২৭১ থেকে তুলে আত্নসাৎ করে ফেলেছে। সে টাকা চাইলে স্থানীয় আওয়ামীলীগের সভাপতি জাফরআলমকে দিয়ে আমাদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে এবং প্রকাশ্য মোবাইলে হত্যা মামলার আসামী করবে বলে হুমকি দিচ্ছে। তবুও আমরা নিজেদের জমানো টাকা ফেরত চেয়ে না পেয়ে জেলা প্রশাসক,পুলিশ সুপার সহ ৫ টি জায়গায় অভিযোগ করেছি পরে পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি সাধারণ সম্পাদকদের জানিয়েছি সে জন্য সে জন্য গতকাল ক্যাশিয়ার মোবারক তার সন্ত্রাসী জিয়া উদ্দিন সহ আমাদের মারধর করতে চেয়েছে কিন্তু আমরা সংখ্যা অনেক বেশি যদি আমরাও প্রতিরোধ করতে চায় তাহলে যে কোন মুহুর্তে বড় ধরনের দূর্ঘটনা হয়ে যাবে। তাই দেশের এই পরিস্থিতিতে গরীব অসহায় মানুষের দিকে চেয়ে নিজেদের জমানো টাকা ফেরত পেতে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেছেন সমিতির সদস্যরা।
এ ব্যাপারে সমিতির সভাপতি শামসুল আলম বলেণ,সমিতির টাকা আছে কোন সদস্য যথাযত নিয়মে আবেদন করলে টাকা ফেরত দেওয়া হবে। আর টাকা চাইছে শুধু মাত্র কয়েকজন বাকিরা কোন কথা বলছেনা এসব অভিযোগ সঠিক নয় বলে দাবি করেন তিনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top