টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

Screenshot_2020-05-09-15-13-56-35.png

দিসিএম…….

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই জন নিহত হয়েছেন।

গতকাল শুক্রবার দিনগত রাত ১টা ১৫ মিনিটে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উলুবনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দুই জন হলেন— নূর মুহাম্মদ (৩৫) ও মোহাম্মদ রফিক (২৫)। তারা দুই জনই উখিয়া উপজেলার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বসবাস করতেন।

পুলিশের দাবি, নিহত দুই জন রোহিঙ্গা মাদক চোরাকারবারি ছিলেন। বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের দুই সদস্যও আহত হয়েছেন। এ ছাড়া, ঘটনাস্থল থেকে দুইটি বন্দুক, পাঁচ রাউন্ড গুলি ও ১ লাখ ৫৮ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

বিষয়টি দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করে টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, ‘গতকাল সন্ধ্যা ৬টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ থানা পুলিশের একটি টিম উলুবনিয়া গ্রামের আলী আকবরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে রোহিঙ্গা যুবক নূর মোহাম্মদ ও মোহাম্মদ রফিককে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায়, তারা একটি সংঘবদ্ধ চক্র। দীর্ঘদিন ধরেই তারা মিয়ানমার থেকে ইয়াবা পাচার করে নিয়ে আসছে। কয়েকদিন আগেই তারা মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি চালান এনে উলুবনিয়া গ্রামের আলী আকবরের বাড়ির পাশের একটি পুকুর পাড়ে মজুদ রাখেন এবং অস্ত্র নিয়ে তা নিয়মিত পাহারা দিয়ে আসছেন।’

‘এ তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল দিনগত রাতে পুলিশ ইয়াবা উদ্ধারের জন্য আটক দুই জনকে নিয়ে অভিযান চালায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছামাত্র সেখানে থাকা অন্য মাদক চোরাকারবারিরা গুলি ছুড়তে শুরু করে। এতে পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এক পর্যায়ে আটক দুই রোহিঙ্গা যুবক গুলিবিদ্ধ হন। গোলাগুলির শব্দ শুনে গ্রামবাসী ঘটনাস্থলে আসতে শুরু করলে পুলিশ গোলাগুলি বন্ধ করে দেয়। পরে গুলিবিদ্ধ দুই জনকে দ্রুত টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ ভোর ৫টার দিকে তাদের মৃত্যু হয়’, বলেন তিনি।

ওসি আরও বলেন, ‘ময়নাতদন্তের জন্য দুই জনের মরদেহ জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় তিনটি মামলা দায়ের করেছে।’

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top