রোহিঙ্গা নারীকে জন্মসনদ দেওয়ার মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

IMG_20200116_005906.jpg

দিসিএম ডেস্ক

রোহিঙ্গা নারীকে জন্মসনদ দেওয়ার অভিযোগে মানিকগঞ্জে এক ইউপি চেয়ারম্যানকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। বুধবার জেলা দায়রা ও জজ আদালতের বিচারক মমতাজ বেগম তাঁর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

ওই ব্যক্তির নাম মতিয়ার রহমান। তিনি সাটুরিয়ার উপজেলার দিঘুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান।

আদালতসংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের নভেম্বরে আসমা নামের এক রোহিঙ্গা নারীকে সাটুরিয়ার দিঘুলিয়া ইউনিয়নের বেংরোয়া গ্রামের আবদুল হাইয়ের মেয়ে জান্নাত আক্তারের নামে জন্মসনদ দেন ইউপি চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান। এরপর গত বছরের ১৩ নভেম্বর আসমা পাসপোর্ট করতে জেলা আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ে যান। পরে বিষয়টি সন্দেহ হলে পুলিশকে জানায় পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষ। পরে পুলিশ তাঁকে আটক করে।

এ ঘটনায় পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষ রোহিঙ্গা নারী আসমা, ইউপি চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান, ওই নারীর স্বামী পরিচয়দানকারী রেজাউল করিম এবং জেলা জজ আদালতের আইনজীবী মনোয়ার হোসেনকে আসামি করে মামলা করে। এ ঘটনায় মতিয়ার রহমান ছাড়া বাকি তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মতিয়ার উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়েছিলেন।

জেলা দায়রা ও জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আবদুস সালাম বলেন, বুধবার ইউপি চেয়ারম্যান আদালতে হাজির হলে তাঁর আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। বিচারক জেলা জজ জামিন না মঞ্জুর করে তাঁকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top