সদ্য ঘোষিত বারবাকিয়া যুবদলের কমিটি থেকে ১৩ নেতাকর্মীর পদত্যাগ

Presentation1-10.jpg

পেকুয়া সংবাদদাতা:

সদ্য ঘোষিত পেকুয়া উপজেলার আওতাধীন বারবাকিয়া ইউনিয়ন যুবদলের কমিটি থেকে ১৩ নেতাকর্মী পদত্যাগ করছেন। বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) সকালে তারা উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সদর চেয়ারম্যান এম.বাহাদুর শাহ বরাবর তাদের স্বাক্ষরিত এ পদত্যাগ পত্র জমা দেন। পদত্যাগ কারীরা হলেন, সদ্য ঘোষিত কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ ইসহাক মিয়া, সহসভাপতি নজরুল ইসলাম মিয়া, সহসভাপতি নুরুল হোছাইন, সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, সম্মানিত সদস্য বেলাল উদ্দিন, সদস্য নুরুল মিছবাহ, গণ-শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ আলী, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ আলমগীর, সদস্য মোহাম্মদ রাজিব, হেলাল উদ্দিন ২নং ওয়ার্ড সভাপতি, মিজানুর রহমান কোষাধ্যক্ষ, আজিম উদ্দিন সদস্য ও সদস্য ইসমাইল। পদত্যাগ কারীরা এ কমিটিকে একটি একছত্র কমিটি এবং স্বজনপ্রীতির কমিটি বলে দাবী করেছেন। তারা আরো বলেন, আমাদের কোন প্রকার মতামতের তোয়াক্কা না করে রাতের আধাঁরে এ কমিটি ঘোষনা করা হয়েছে। পদত্যাগকারী সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন বলেন, আমি পদত্যাগ করছি তার কারন হলো এখানে ত্যাগীদের মুল্যায়ন করা হয়নি নেতাদের ইচ্ছেমত কমিটি দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমি সম্পাদক হয়েছি সেটা বড় কথা নয় এখানে অনেক ত্যাগী নেতাকর্মীরা বাদ পড়েছেন তাদের ছাড়া এ কমিটি অর্থহীন তাই আমি পদত্যাগ করেছি। সিনিয়র সহসভাপতি ইছহাক মিয়া বলেন, একমিটি রাতের আধাঁরে করা হয়েছে যেখানে সিনিয়র কোন নেতার কোন প্রকার মন্তব্য নেয়া হয়নি একটি একটি একছত্র কমিটি। সিনিয়র সদস্য বেলাল উদ্দিন বলেন, এ কমিটি হলো ত্যাগী আর সিনিয়র নেতাকর্মীদের বাদ দেয়ার একটি কমিটি এ কমিটি দিয়ে কোন প্রকার আন্দোলন সংগ্রাম আশা করা যায়না তাই আমি পদত্যাগ করেছি। এব্যাপারে বারবাকিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মাষ্টার ইউনুসের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমরা জানিও না এ কমিটি কখন কিভাবে ঘোষণা করা হয়েছে। আমরা জানতাম অংগসংগঠন কোন কমিটি হলে স্থানীয় ইউনিয়ন বিএনপি থেকে মতামত নেয়া হতো কিন্ত আজকাল হয়তো সেটি পরিবর্তন হয়েছে। উপজেলা বিএনপির সভাপতি এম. বাহাদুর শাহ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি পদত্যাগ পত্র হাতে পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বারবাকিয়ায় আমার কমিটির সাধারণ সম্পাদকের বাড়ি, তার সাথে কথা বলেছি সেও নাকি এ কমিটি সম্পর্কে জানে না। আমি ২২ তারিখ থেকে এলাকায় আছি আমিও জানিনা। এ বিষয়ে পেকুয়া উপজেলা যুবদলের আহবায়ক কামরান জাদিদ মুকুটের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। উল্লেখ্য যে, গত ২৪ ডিসেম্বর এস এম সাজ্জাদ নুরকে সভাপতি ও গিয়াস উদ্দিনকে সম্পাদক করে মোট ৮১ সদস্য বিশিষ্ট বারবাকিয়া ইউনিয়ন যুবদলের কমিটি অনুমোদন দেন উপজেলা যুবদলের সভাপতি কামরান জাদীদ মুকুট।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top