ভারতে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের ঘোষণা তুরস্কের

2019-11-11_114022.png

ভারতে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির আমদানির অন্যতম প্রধান উৎস তুরস্ক। ফলে সামান্য বিরতি দিয়ে ভারতের বাজারে আবারও পেঁয়াজের দাম বাড়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। ভারতের ইংরেজি দৈনিক ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, দেশের পাইকারি বাজারের অনেক আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান পেঁয়াজের দাম ১০ থেকে ১৫ শতাংশ বাড়তে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। পেঁয়াজের সঙ্কট তৈরি হওয়ার পর ভারতীয় ব্যবসায়ীরা চীন, তুরস্ক এবং মিসর থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু করেন।

চলতি বছরের এপ্রিল থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ভারতের ব্যবসায়ীরা অন্তত ৭ হাজার ৭০ টন পেঁয়াজ আমদানি করেছেন। ভারতের আমদানিকারকরা বলছেন, এসব পেঁয়াজের ৫০ শতাংশই এসে তুরস্ক থেকে। ভারতে পেঁয়াজের চাহিদা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তুরস্কের বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে।

ভারতের পেঁয়াজ আমদানিকারক সুরেশ দেশমুখ বলেন, তুরস্কে পেঁয়াজের দাম আকাশচুম্বী হওয়ায় ভারতে রফতানি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার। দেশীয় বাজারে পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে ভারত সরকার যে ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে; ঠিক একই ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে আঙ্কারা সরকার। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার গত সেপ্টেম্বর থেকে পেঁয়াজের রফতানি বন্ধ করেছে।

তুরস্ক পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করায় শিগগিরই ভারতের বাজারে আবারও দাম বাড়বে বলে জানিয়েছেন দেশমুখ। পেঁয়াজ ব্যবসায়ী কুনাল কোর্পি বলেন, বর্তমানে ভারতের বাজারে পেঁয়াজ ৫০ থেকে ৬০ রূপিতে বিক্রি হচ্ছে। তুরস্ক রফতানি বন্ধ করায় ভারতে পেঁয়াজের দাম বেড়ে কেজি প্রতি ৭০ থেকে ৮০ টাকা বিক্রি হতে পারে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top