রাশিয়া চাপ দিলে রোহিঙ্গা ফেরত নেবে মিয়ানমার

7052_me-1.jpg

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে রাশিয়ার সহায়তা চেয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, রাশিয়া ও রাশিয়ান ফেডারেশন যদি রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে চাপ দেয়, তাহলে তাদের ফিরিয়ে নিতে রাজি হবে দেশটি।

তিনি বলেন, রাশিয়ার অনেক প্রভাব রয়েছে মিয়ানমারের ওপর। তারা যদি যথেষ্ট চাপ দেয় তাহলে হয়তো রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে পারে মিয়ানমার। এর ফলে এ মানুষগুলো একটা ভালো জীবনে ফিরে যেতে পারবে।

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে সোভিয়েত/ রাশিয়া বিষয়ক পঞ্চম এশিয়ান কনফারেন্সের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রাশিয়া যদি মিয়ানমারকে যথেষ্ট চাপ দিতে পারে, তাহলে হয়তো রোহিঙ্গাদের স্বেচ্ছায়, নিরাপদে ও সম্মানজনকভাবে ফিরে যাওয়ার সুযোগ তৈরি হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে সম্পর্ক মুক্তিযুদ্ধ থেকে কিন্তু বঙ্গবন্ধু মারা যাওয়ার পর সেখানে ভাটা পড়ে যায়। বঙ্গবন্ধু কন্য শেখ হাসিনা দায়িত্ব নেবার পর থেকে আবারো সে সম্পর্ক সুন্দরভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর আমাদের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য বেড়েছে। অনেকগুলো চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। রূপপুর বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের কাজ এগিয়ে চলছে।

তিনি আরো বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্কের পরিধি আরো বাড়াতে চায় বাংলাদেশ। এর ফলে দুই দেশের মানুষ উপকৃত হবে। বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি এখন ৮.১ শতাংশ। আমাদের অর্থনীতি এখন অনেক ভালো।

রাশিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন বলেন, রাশিয়া যেন এ দেশে বিনিয়োগ করে। কারণ এখানে যেকোনো পণ্য তৈরি করলে তার মার্কেট প্রস্তুত রয়েছে। তাই রাশিয়ার বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করে ব্যবসাবান্ধব পরিবেশের সুযোগ নিতে পারে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top