শহরে আবাসিক হোটেলে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, ভাঙচুর ও লুটপাটঃ আহত ৫

pink-2.jpg

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
কক্সবাজার শহরের কলাতলী সুগন্ধা পয়েন্টের বি-ব্লকে অবস্থিত হোটেল পিংকশোরে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, হামলা, ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। সশস্ত্র মুখোশধারী ডাকাত দল লুট করে নিয়ে গেছে নগদ টাকাসহ প্রায় কোটি টাকার মালামাল। বেপরোয়া হামলা ও মারধরে ৫ কর্মচারী আহত হয়েছে।
বুধবার (৪ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত দুইটার দিকে এই ঘটনাটি ঘটেছে।
খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে, পুলিশ পৌঁছার আগেই ডাকাতদল পালিয়ে যাওয়ায় জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি।
আহত নিরাপত্তা প্রহরী নুরুল হক জানান, রাত ২ টার দিকে অর্ধশতাধিক সশস্ত্র ডাকাতদল অতর্কিতভাবে হোটেলে ঢুকে রিসিপশন, এমডির কক্ষে ঢুকে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। প্রায় ২০ মিনিট ধরে চলমান কমান্ডো স্টাইলের ডাকাতিতে হোটেলের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিভিন্ন কক্ষে অবস্থানরত অতিথিরা জিম্মি হয়ে পড়ে। পুলিশ গিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে। বেড়াতে গিয়ে এমন দৃশ্য দেখে অনেক পর্যটক হোটেল ছেড়ে চলে গেছে।
পর্যটন মৌসুমের শুরুতেই এমন ঘটনায় কক্সবাজারের পর্যটনশিল্পে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে স্থানীয়রা মনে করছে।


ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে যাওয়া কক্সবাজার সদর মডেল থানার পুলিশ উপপরিদর্শক (এসআই) রাজিব পোদ্দার মালিকানার দ্বন্দ্বের কারণে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে জানান।
হোটেল পিংকশোরের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোঃ আশরাফুল ইসলাম জানান, হোটেলে অবস্থানরত এক অতিথির ফোন পেয়ে তিনি দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখেন, সব তছনছ করে ফেলা হয়েছে। ইতোপূর্বে ডাকাতদল পালিয়ে যায়।
এমডি আশরাফ জানান, তার ড্রয়ারে রক্ষিত ছিল জমি বিক্রির বায়না বাবদ নেয়া ৫০ লক্ষ টাকা। ড্রয়ারের তালা ভেঙ্গে টাকাগুলো নিয়ে গেছে ডাকাত দল। ভেঙ্গে চুরে তছনছ করেছে তার কক্ষ, রিসিপশন ও হোটেলের বিভিন্ন কক্ষ। ল্যাপটপ-কম্পিউটার, সিসি ক্যামেরা, ক্রেডিট কার্ড, চেকবই, নিরাপত্তাকর্মীদের মোবাইলসহ হোটেলের প্রায় কোটি টাকার মালামাল ক্ষয়ক্ষতি ও লুট করেছে। বেপরোয়া মারধরে আহত হয়েছে নিরাপত্তাকর্মী নুরুল হক, রিদওয়ান, মোরশেদ, এরফান, মাসুদ ও আলাউদ্দিন।
নিরাপত্তাকর্মী ও স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে মোঃ আশরাফুল ইসলাম আরো জানান, ডাকাত দলের সদস্য অর্ধশতাধিক হলেও কয়েকজনকে তারা চিনতে পেরেছে। ঘটনায় নেতৃত্ব দিয়েছে মকতুল, জালাল, বেলাল, ফয়সাল, তৌহিদুল আনোয়ার। তারা মুখোশ পরিহিত ছিল না বলে নামগুলো জেনেছে হোটেলপক্ষ। ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চায় হোটেল ব্যবসায়ীরা।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top