মিয়ানমার থেকে এক দিনে আসলো ১ হাজার ১১৬ মেট্রিক টন পেঁয়াজ

5802_me.jpg

জসিম মাহমুদ :

টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে এবারই প্রথম একদিনে র্সবোচ্চ ১হাজার ১১৬ দশমিক ৯৩৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে। এরমধ্যে গত এক সপ্তাহে ৪ হাজার ৫৭২ দশমিক ৯৮৩মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে।
গতকাল সোমবার এসব পেঁয়াজ খালাস করা হয়েছে। এই নিয়ে ভারত রপ্তানি বন্ধের পর সাত দফায় ৪ হাজার ৫৭২ দশমিক ৯৮৩মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে। খালাস হওয়া পেঁয়াজ ছাড়াও নাফ নদীতে আরও সাতটি ট্রলারে ১১হাজার ৫৫৭ বস্তায় সাড়ে ৪০০মেট্রিক টন (আজ) মঙ্গলবার সকালের খালাস হওয়ার কথা রয়েছে। এই তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ স্থলবন্দরের কাস্টমস সুপার আবছার উদ্দিন।
স্থলবন্দরের কাস্টমস সূত্র জানায়, পেঁয়াজের দাম বাড়ার পর গত ৫ সেপ্টেম্বর থেকে পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্র মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু করা হয়। এরমধ্যে সেপ্টেম্বর মাসের ৩হাজার ৫৭৩ দশমিক ১৪১মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে। যাহার আমদানিমূল্য ১৫ কোটি কোটি ৫৫ লাখ লাখ টাকা। ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের পর মিয়ানমার থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর ৬৫০ দশমিক ৯২৩; ১ অক্টোবর ৫৬৯ দশমিক ৭৩০; ২ অক্টোবর ৫৮৪ দশমিক ৭৩২; ৩ অক্টোবর ৮০৩ দশমিক ৭৯৮; ৫ অক্টোবর ৪৩৯ দশমিক ১৬০ ; ৬ অক্টোবর ৪০৭ দশমিক ৭১১ ও (আজ)৭ অক্টোবর ১ হাজার ১১৬ দশমিক ৯৩৫মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে।
আমদানিকারকরা জানান, মিয়ানমার থেকে প্রচুর পরিমাণে পেঁয়াজ টেকনাফ স্থলবন্দরে আনা হচ্ছে।তবে স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ যথাযথ ভাবে খালাস প্রক্রিয়া করতে না পারায় অনেক পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছেন। মিয়ানমার থেকে আসা পেঁয়াজ বোঝাই ট্রলারগুলো স্থলবন্দর এসে নোঙ্গর করে রাখতে হচ্ছে। বস্তা ভতি হওয়াই দিনে এনে দিনে সরবরাহ করতে না পারায় গরমে পেঁয়াজ নষ্ট হওয়ায় ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। এরপরও দেশের স্বাথের কথা চিন্তা করে ব্যবসায়ীরা এখনও পেঁয়াজ আমদানি করছেন।
এদিকে, টেকনাফের বাজারে গতকাল সোমবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত এ পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৬৫-৭০টাকায় বিক্রয় করা হচ্ছে বলে কয়েকজন ব্যবসায়ী জানিয়েছেন।
স্থলবন্দর পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান ইউনাইটেড ল্যান্ড পোট টেকনাফের মহাব্যবস্থাপক জসিম উদ্দিন বলেন, মিয়ানমার থেকে আসা পেঁয়াজভর্তি ট্রলারগুলো দ্রুতগতিতে খালাস প্রক্রিয়া চলছে। এমনকি রাতে ও অতিরিক্ত শ্রমিক দিয়ে পেঁয়াজ খালাস করা হচ্ছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ ভর্তি ৭৬টি ট্রাক দেশের বিভিন্ন বিভাগীয় শহরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে গেছে। মিয়ানমার থেকে আসা আরও সাতটি ট্রলার জেটিতে খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top