প্রতীক্ষিত ”শীর্ষ স্হানীয় ওলামা মশায়েখ কক্সবাজার জেলা‘‘র প্রকাশনা অনুষ্ঠান ১১ জুলাই

download-7.jpg

বিশেষ প্রতিবেদন

ইসলাম ও মুসলমান এ দেশে একটি সাহসী উচ্চারণ। অন্য অঞ্চলের চেয়ে সাহাবী ,তাবেয়ী, তাবে তাবেয়ী, পীর-দরবেশের দাওয়াতি মেহনতে এ অঞ্চলের মানুষ উন্নত গুণমানের মুসলমান। ইতিহাসের ক্রমধারায় কক্সবাজার জেলার আলেমসমাজেরও অবস্থান অত্যন্ত গৌরবোজ্জ্বল।

প্রতি যুগেই কক্সবাজারের আলেমগণ সমাজে দ্বীনি শিক্ষার প্রচার, প্রসার ও প্রতিষ্ঠা এবং সংরক্ষণের ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। তৎসঙ্গে যে কোন ইসলামবিরোধী শক্তির মোকাবেলায় তারা অগ্রণী ভূমিকা রেখেছেন। তাছাড়া দেশবিরোধী যে কোন আগ্রাসী শক্তির মোকাবেলায়ও আলেমগণ সাধ্যমত অংশ নিয়েছেন। মূলত আলেমগণ সমাজের অভিভাবক হিসেবে ভূমিকা পালন করে আসছেন। কালের পরিক্রমায় আজ আমরা তাঁদের ভুলে যাচ্ছি।

কক্সবাজার জেলার ১৮০১ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত ২২৮ জন সেইসব ইসলামী চিন্তাবিদ ও সমাজ সংস্কারকদের জীবনি নিয়ে লিখিত হয়েছে গ্রন্থ- ”শীর্ষ স্হানীয় ওলামা মশায়েখ কক্সবাজার জেলা (১৮০১-২০০০ সাল)”

প্রতীক্ষিত গ্রন্থটির প্রকাশনা অনুষ্ঠান আগামি ১১ জুলাই বৃহস্পতিবার , বিকাল ৪.০০ টায় কক্সবাজার প্রেসক্লাব মিলনায়তনে।

যুগান্তকারী এই গ্রন্থটি রচনা করেন  জেলার প্রবীণ শিক্ষাবিদ, গবেষক ও লেখক অধ্যাপক মওলানা মুফতি মুহাম্মদ হাবিব উল্লাহ।এটি তাঁর ৬ষ্ট প্রকাশনা।

প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের  চেয়ারম্যান, প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনুস

বিশেষ অতিথি  হিসেবে কক্সবাজার সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর এ.কে.এম ফজলুল করিম চৌধুরী এবং চট্রগ্রাম ওমর গনি এম.ই.এস কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ  সাবেক বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড.আ.ফ.ম খালিদ হোসাইন  উপস্থিত থাকবেন।

 

 

 

 

 

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top