মাথায় আঘাত করে অচেতনের পর শিশু সায়মাকে ধর্ষণ ও হত্যা করে এই নরপশু

palabadal-15624889161-163949.jpg

নিউজ ডেস্ক।।

রাজধানীর ওয়ারীতে শিশু সায়মা হত্যার ঘটনায় মূল অভিযুক্ত হারুনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকার গোয়েন্দা পুলিশ। ওয়ারী জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শাহ ইফতেখার সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, জিজ্ঞাসাবাদে হারুন সায়মাকে ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে।

অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শাহ ইফতেখার বলেন, ছাদ দেখানোর কথা বলে সে শিশুটিকে লিফট থেকে সবচেয়ে উপর তলায় অবিক্রিত একটি শূন্য ফ্ল্যাটের ভেতর নিয়ে যায়। সেখানে শিশুটিকে প্রথমে ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। তাতে ব্যর্থ হয়ে শিশুটির মাথায় আঘাত করে অচেতন করে।

তিনি জানান, হারুনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী এরপরে সে শিশুটিকে ধর্ষণ করে। কিন্তু তার পরিচয় প্রকাশ পেয়ে যেতে পারে, এই ভয়ে শিশুটিকে হত্যা করে গলায় রশি বেঁধে ঝুলিয়ে রেখে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়।

৭ বছর বয়সী সামিয়া শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজ বাসা থেকে বের হওয়ার থেকে নিখোঁজ ছিল। অনেক খোঁজাখুঁজির পর একই ভবনের আটতলায় অব্যবহৃত একটি ফ্ল্যাটের রান্না ঘরে গলায় রশি পেঁচানো অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top