পুলিশ সোপর্দের আগে চকরিয়ায় গরু চোরকে

গণধোলাই

images-2.jpeg

এম.মনছুর আলম, চকরিয়া:
চকরিয়ায় গরু চুরি করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়েছে। স্থানীয় জনতা গণধোলাইয়ের পর ওই গরু চোরকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। শুক্রবার (৫জুলাই) ভোররাত ৩টার দিকে উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের পূর্ব পাগলির বিল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের কাছে সোপর্দ করা গরুচোর হলেন, উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডস্থ গর্জনতলী এলাকার মোহাম্মদ ইসলামের ছেলে জয়নাল আবেদীন (৩৬)।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানায়, শুক্রবার গভীর রাতে বৃষ্টির সময় ডুলাহাজারা ইউনিয়নের পূর্ব পাগলির বিল এলাকায় গরু চুরি করতে হানা দেয় খুটাখালী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডস্থ গর্জনতলী এলাকার মোহাম্মদ ইসলামের ছেলে জয়নাল আবেদীন। এ সময় স্থানীয় লোকজন তার গতিবিধি আঁচ করতে পেরে জনতা তাকে ধাওয়া দিয়ে ধরে আটক করেন। পরে জনতা ক্ষিপ্ত হয়ে আটক গরুচোরকে বেদড়ক উত্তম-মধ্যম দিয়ে আটকে রাখে। এ সময় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে টহলরত থানার উপপরিদর্শক (এস আই) মাজহারুল ইসলাম সরকার খুটাখালী থেকে দায়িত্বপালন শেষে চকরিয়া পৌরশহরের দিকে যাচ্ছিল। প্রতিমধ্যে মহাসড়কের ডুলাহাজারাস্থ পাগলির বিল ব্রীজ এলাকায় পৌছলে ব্যাপক টর্চ লাইটের আলো দেখতে পেলে ঘটনাস্থলে ছুটে যান। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে স্থানীয় জনতার হাত থেকে আটক গরুচোরকে আহতবস্থায় উদ্ধার করে।

থানার উপপরিদর্শক (এস আই) মাজহারুল ইসলাম সরকার বলেন, শুক্রবার ভোররাত তিনটার দিকে রাত্রিকালীন ডিউটি শেষে খুটাখালী থেকে থানার দিকে যাচ্ছিলাম। প্রতিমধ্যে মহাসড়কের ডুলাহাজারাস্থ পাগলির বিল ব্রীজ নামক এলাকায় পৌছলে পূর্ব পাগলির বিল এলাকায় ব্যাপক টর্চ লাইটের আলোসহ জনতাকে দেখতে পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।
তিনি আরও বলেন, স্থানীয় জনতা জয়নাল নামে চিহ্নিত এক গরুচোরকে ব্যাপক উত্তম-মধ্যম দিয়ে আটকে রাখে। আটক গরুচোরকে জনতার হাত থেকে আহতবস্থায় উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে আহত গরুচোরকে পুলিশ হেফাজতে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে একাধিক গরুচুরির মামলা রয়েছে। ইতিপূর্বেও তাকে স্থানীয় জনতা গরুসহ বেশ কয়েকবার আটক করেছে।
চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.হাবিবুর রহমান জানান, ডুলাহাজারা পাগলির বিল এলাকায় গরু চুরি করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা পড়েছে জয়নাল নামে এক গরুচোর। স্থানীয় জনতা ওই গরু চোরকে আটকের পর পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। তাকে বর্তমানে জেলা সদর হাসপাতালে পুলিশ হেফাজতে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। ধৃত গরুচোরের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top