ছাত্রলীগ নেতার গ্রেপ্তারের দাবিতে সিলেটে চিকিৎসকদের আলটিমেটাম

03c1031deaaaa25d8e00b9b8d3c46cbd-5cd805bd48eef.jpg

প্রথম আলো

সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিক্ষানবিশ চিকিৎসকের সঙ্গে ছাত্রলীগের নেতার অসৌজন্যমূলক আচরণ ও হুমকির প্রতিবাদে আজ রোববারও বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন হাসপাতালের চিকিৎসকেরা। কর্মসূচিতে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সরোয়ার হোসেন চৌধুরীকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তারের আলটিমেটাম দেন তাঁরা।

রোববার বেলা একটার দিকে হাসপাতালের চিকিৎসক ও শিক্ষানবিশ চিকিৎসকেরা ছাত্রলীগের নেতার শাস্তির দাবিতে হাসপাতালের প্রধান ফটক থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে নগরের চৌহাট্টা এলাকায় যান। পরে বিক্ষোভ মিছিলটি ফের হাসপাতাল প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় হাসপাতালের সামনের প্রধান সড়কে ‘চিকিৎসকদের নিরাপদ কর্মস্থল চাই’ শিরোনামে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন চিকিৎসকেরা।

মানববন্ধনে চিকিৎসকেরা বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের শিকার হওয়াটা কাম্য নয়। কর্মস্থলে চিকিৎসকেরা নিরাপদ নন, এই ঘটনাই তার প্রমাণ। এ সময় চিকিৎসকেরা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সরোয়ার হোসেনকে গ্রেপ্তারের দাবি জানান। দাবি না মানা হলে বৃহৎ ও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলেও জানান বক্তারা।

এ ছাড়া বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) সিলেট শাখার সভাপতি বদরুল হোসেন চিকিৎসকদের আন্দোলনে একাত্মতা পোষণ করে ছাত্রলীগের নেতা পরিচয় দানকারী সরোয়ার হোসেনকে দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে এক সহকর্মীর চিকিৎসার জন্য সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যান দক্ষিণ সুরমা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সরোয়ার হোসেন চৌধুরী। এ সময় হাসপাতালের এক শিক্ষানবিশ চিকিৎসক অভিজ্ঞ চিকিৎসকের জন্য তাঁদের অপেক্ষা করতে বলেন। এ নিয়ে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে সরোয়ার শিক্ষানবিশ চিকিৎসককে ধর্ষণ ও হত্যার হুমকি দেন বলে অভিযোগ ওঠে। এর প্রতিবাদে গতকাল শনিবার বিক্ষোভ করেন হাসপাতালের চিকিৎসকেরা। পরে শনিবার বিকেলে সিলেট কোতোয়ালি থানায় নিরাপত্তাহীনতার বিষয় উল্লেখ করে সাধারণ ডায়েরি করেন হাসপাতালের পরিচালক ফেরদৌস হোসেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top