পবিত্র শবে বরাত নিয়ে আগের ঘোষণাই বহাল

55508061_1304312746386602_4268877276642279424_n-55.jpg

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ ও অন্যরা। সচিবালয়, ঢাকা, ১৬ এপ্রিল। ছবি: মোশতাক আহমেদধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ ও অন্যরা। সচিবালয়, ঢাকা, ১৬ এপ্রিল। ছবি: মোশতাক আহমেদ

দিসিএম ডেস্ক।।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতেই সারা দেশে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে। আজ মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ।

পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখার সিদ্ধান্তের বিষয়ে ভিন্নমত পোষণকারী ব্যক্তিদের দাবি যাচাইয়ে ১৩ এপ্রিল গঠিত সাব–কমিটির সিদ্ধান্তের আলোকে প্রতিমন্ত্রী এই তথ্য জানান। সংবাদ ব্রিফিংয়ে ওই কমিটির আহ্বায়ক মুফতি মুহাম্মদ আবদুল মালেককে পাশে নিয়ে প্রতিমন্ত্রী মূলত ওই কমিটির সিদ্ধান্ত পড়ে শোনান।

এর আগে ৬ এপ্রিল জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে পবিত্র লাইলাতুল বরাত পালনের সিদ্ধান্ত হয়েছিল। ওই সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ওই দিন বাংলাদেশের আকাশে কোথাও ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে ৭ এপ্রিল রোববার পবিত্র রজব মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হবে এবং ৮ এপ্রিল থেকে পবিত্র শাবান মাস শুরু হবে।

কিন্তু ওই সিদ্ধান্তের বিষয়ে ভিন্নমত এলে ১৩ এপ্রিল জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি ও ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে আবারও সভা হয়। সভায় পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখার সিদ্ধান্তের বিষয়ে ভিন্নমত পোষণকারী ব্যক্তিদের দাবি যাচাইয়ে মারকাযুদ দাওয়াহ–এর শিক্ষাসচিব মুফতি মুহাম্মদ আবদুল মালেককে প্রধান করে বিশিষ্ট উলামায়ে কেরামের সমন্বয়ে ১১ সদস্যের একটি সাব–কমিটি গঠন করা হয়।

সংবাদ ব্রিফিংয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই কমিটি ইসলামিক ফাউন্ডেশনে সভা করে প্রথমে শরিয়তের আলোকে বিভিন্ন দিক নিয়ে পর্যালোচনা করে। এরপর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের দুজন কর্মকর্তার মাধ্যমে যাঁরা চাঁদ দেখেছেন বলে দাবি করেছেন, তাঁদের সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য আহ্বান জানানো হয়। কিন্তু তাঁরা সাক্ষ্য দিতে না এসে অপ্রাসঙ্গিক কিছু শর্ত জুড়ে দেন। বিষয়টি সভাকে জানানো হলে সভার সদস্যরা ওই শর্তগুলো শরিয়তের সাক্ষ্য প্রদানের নিয়মবহির্ভূত আখ্যা দিয়ে নিয়ম অনুযায়ী স্বাভাবিকভাবে সাক্ষ্য দিতে আবারও অনুরোধ করেন। কিন্তু তখনো তাঁরা সাক্ষ্য দিতে আসেননি। বরং আগের মতো অপ্রাসঙ্গিক শর্ত জুড়ে দেন, যা ইসলামি শরীয়াহবহির্ভূত।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নতুন চাঁদের বিষয়টি সম্পূর্ণ একটি দ্বীনি বিষয়। এ ব্যাপারে ইসলামি শরিয়াহর ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নিতে হয়। যেহেতু সাক্ষীরা সাব–কমিটির অনুরোধের পরও সাক্ষ্য দিতে সভায় উপস্থিত হননি, বরং সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য এমন কিছু শর্ত জুড়ে দিয়েছেন, সেভাবে সাক্ষ্য গ্রহণের শরিয়তের কোনো ভিত্তি নেই। তাই চাঁদ দেখার কোনো সাক্ষীর সাক্ষ্য না পাওয়ায় সাব–কমিটির সভায় ইসলামি শরিয়াহ অনুযায়ী জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির ৬ এপ্রিল ঘোষিত সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছে। অর্থাৎ পয়লা শাবান ৮ এপ্রিল থেকেই শুরু হওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হলো এবং ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে সারা দেশে পবিত্র বরাত পালিত হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমানসহ আরও কয়েকজন।

এর আগে গতকাল সোমবার হাইকোর্ট বলেছিলেন, পবিত্র শবে বরাত ধর্মীয় স্পর্শকাতর ইস্যু, এটি মামলার বিষয়বস্তু বানানো ঠিক হবে না। ২০ এপ্রিল দিবাগত রাতে শবে বরাত ঘোষণার নির্দেশনা চেয়ে রিট দায়েরের অনুমতিবিষয়ক শুনানিতে বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ কথা বলেন।

আদালত রিট দায়েরের জন্য অনুমতি দেননি বলে জানান এম সাইফুল আলম। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, যাঁরা রিট করার অনুমতি চেয়েছিলেন, তাঁদের কেউ কেউ শাবান মাসের চাঁদ দেখেছেন বলছেন। এই বিষয়ক যেসব তথ্য তাঁদের কাছে আছে, তা সহ তাঁদের লিখিত আবেদন ইসলামিক ফাউন্ডেশনে জমা দিতে বলেছেন আদালত। তাঁদের লিখিত আবেদন যেন ইসলামিক ফাউন্ডেশন জমা নেয়, তা নিশ্চিত করতে রাষ্ট্রপক্ষকে বলা হয়েছে। পবিত্র শবে বরাত কবে, তা নির্ধারণে ১৭ এপ্রিল জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা আছে। ওই তথ্যসহ সব তথ্য পর্যালোচনা করে ধর্মীয় অনুশাসন অনুসারে সিদ্ধান্ত নিতে বলেছিলেন আদালত।

২০ এপ্রিল দিবাগত রাতে শবে বরাত ঘোষণা দিতে নির্দেশনা চেয়ে মসজিদের ইমাম, খতিবসহ ১০ ব্যক্তি রিট দায়েরের জন্য অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন বলে জানান আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, রিট দায়েরে ইচ্ছুক আবেদনকারীদের ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলা হয়েছে। তাঁদের বক্তব্য, ৭ এপ্রিল শাবান মাসের চাঁদ দেখা গেছে, ওই দিন থেকে গণনা করা ২০ এপ্রিল দিবাগত রাতে শবে বরাত হবে। বিষয়টি তাঁরা ধর্মসচিব ও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালককে ১০ এপ্রিল জানিয়েছেন। তবে কোনো জবাব পাননি। তাঁদের লিখিত আবেদন ইসলামিক ফাউন্ডেশনকে বিবেচনা করতে বলা হয়েছে।

জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত জানিয়ে ৬ এপ্রিল ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২১ এপ্রিল দিবাগত রাতে সারা দেশে পবিত্র লাইলাতুল বরাত পালিত হবে। আরও বলা হয়, বাংলাদেশের আকাশে শনিবার কোথাও ১৪৪০ হিজরি সনের পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে ৭ এপ্রিল রোববার পবিত্র রজব মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হবে এবং ৮ এপ্রিল থেকে পবিত্র শাবান মাস শুরু হবে।

এরপর ১৩ এপ্রিল পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখার বিষয়ে বিশেষ সভা হয়। সভায় পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখার সিদ্ধান্তের বিষয়ে ভিন্নমত পোষণকারীদের দাবি যাচাইয়ে ১১ সদস্যের একটি উপকমিটি গঠন করা হয়। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের এক বিজ্ঞপ্তির ভাষ্য, উপকমিটি ১৭ এপ্রিল জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির কাছে সুপারিশ দেবে, যার ভিত্তিতে চাঁদ দেখার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এ অবস্থায় হাইকোর্টে রিট আবেদন দায়েরের জন্য অনুমতি চেয়ে সোমবার আরজি জানানো হয়েছিল।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top