ময়লা ছড়িয়ে ময়লা পরিষ্কার নির্বাচিত মেয়র আতিকুলের!

40325134_321464395256082_4626984399877963776_n.png

ভ্যানে করে ময়লা কাগজ এনে টুকরো টুকরো রাস্তায় ফেলছেন ডিএনসিসি’র একজন কর্মী

পরিষ্কার রাস্তায় ময়লা ছড়িয়ে-ছিটিয়ে সেই ময়লা অপসারণ করে পরিচ্ছন্নতা অভিযান উদ্বোধন করলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) সদ্য নির্বাচিত মেয়র আতিকুল ইসলাম।

রবিবার (১৭ মার্চ) দুপুরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে ‘বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান ও দেয়ালচিত্র’ কর্মসূচি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এমন ঘটনা ঘটেছে। রাজধানীর তেজগাঁওয়ের সাত রাস্তা সংলগ্ন মেয়র আনিসুল হক সড়কে এ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন ডিএনসিসি’র মেয়র আতিকুল ইসলাম।



পরিষ্কার রাস্তায় কাগজের টুকরো ফেলছেন ডিএনসিসি’র এক কর্মীসরেজমিন দেখা গেছে, রবিবার সকাল থেকে ওই এলাকাসহ আশপাশে প্রতিটি সড়ক ও অলিগলি পরিষ্কার করা হয়। সড়কে দুর্গন্ধ দূর করতে ব্লিচিং পাউডারও ছিটানো হয়। ডিএনসিসি কর্মীদের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের কর্মীরাও এ কাজে অংশ নেন।

মেয়রের নেতৃত্বে সড়ক পরিচ্ছন্ন অভিযানবেলা ১১টার দিকে আনিসুল হক সড়কে গিয়ে দেখা যায়, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন সড়কটিতে ডিএনসিসি’র বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের একটি ভ্যানগাড়িতে করে ছেঁড়া পোস্টার ও কাগজপত্র সংগ্রহ করে ফের তা সড়কেই ছড়িয়ে-ছিটিয়ে ফেলা হচ্ছে। ডিএনসিসি’র দু’জন পরিচ্ছন্নতাকর্মী ময়লা কাগজ টুকরো-টুকরো করে সড়কে ফেলে যাচ্ছেন। হ্যান্ডমাইক হাতে মেয়র আনিসুল হকের ‘লাভ ঢাকা’ কর্মসূচির একজন কর্মীকে এ সময় তাদের (পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের) দিকনির্দেশনা দিতে দেখা যায়।



পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচির উদ্বোধন করেন ডিএনসিসি’র মেয়রনাম প্রকাশ না করে ওই পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা জানান, মেয়র আতিকুল ইসলাম পরিচ্ছন্ন কাজ উদ্বোধন করতে আসবেন। কিন্তু এর আগেই পুরো রাস্তা পরিষ্কার করা হয়। উদ্বোধনের আগে দেখা গেলো সড়কে কোনও ময়লা নেই। তাই কিছু ময়লা সংগ্রহ করে মেয়র আনিসুল হক সড়কে ফেলে রাখার জন্য স্যারেরা বলেছেন। তারা বলেন, ‘আমরা শুধু সেই নির্দেশ বাস্তবায়ন করছি।’



বক্তব্য রাখছেন মেয়র আতিকুল ইসলামএরপর বেলা পৌনে ১২টার দিকে মেয়র আতিকুল ইসলাম তার সহকর্মীদের নিয়ে সড়কটিতে পরিচ্ছন্ন কাজ উদ্বোধন করতে আসেন। ঝাড়ু হাতে একদল স্বেচ্ছাসেবকসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের নিয়ে সড়কটিতে পরিষ্কার অভিযানে নামেন মেয়র আতিকুল ইসলাম। এ নিয়ে বিরূপ মন্তব্যও করেছেন কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া কেউ কেউ।



এ সময় শাজাহান নামে এক ব্যক্তি বলেন, ‘এভাবে অভিযানে না নেমে মেয়র যদি তার কর্মীদের দিয়ে প্রতিদিন সব এলাকা পরিচ্ছন্ন রাখেন, তাহলে এভাবে কর্মসূচি পালনের প্রয়োজন হবে না। জনগণ কর্মসূচি দেখতে চায় না, তারা চায় কাজ। ভালো কাজ করলে প্রচার এমনিতেই হবে।’

ডিএনসিসি’র একদল নারী পরিচ্ছন্নতা কর্মীপরিচ্ছন্ন সড়কে ময়লা ফেলতে দেখে সাবিনা নামে একজন শিক্ষার্থী বলেন, ‘মেয়র পরিচ্ছন্নতা অভিযান উদ্বোধন করবেন, তাই পরিষ্কার রাস্তায় আবারও ময়লা ফেলা হচ্ছে। এটা তো লোক দেখানো অভিযান। তারাই যদি এমন করেন—তাহলে নাগরিকরা কী শিখবে?’



সড়কে ময়লা ফেলে পরিচ্ছন্নতা অভিযান উদ্বোধনের বিষয়ে জানতে চাইলে মেয়র আতিকুল ইসলাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বিষয়টি আসলে কীভাবে হলো আমার নলেজে নেই। এটা অবশ্যই ঠিক হয়নি। কিন্তু আমাদের বার্তা হচ্ছে— রাস্তা পরিষ্কার রাখতে হবে। ময়লা ফেলা যাবে না। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। এজন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। কিন্তু পরিচ্ছন্ন রাস্তায় তারা ফের কেন ময়লা ফেললো, সেটার খোঁজ নেবো।’

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top