মিরসরাইয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরে হচ্ছে ‘ভারতীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল’

school-and-office-identity-card.jpg

দিসিএম ডেস্ক।।

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগরে ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের জন্য অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। খবর – সারাবাংলা

এজন্য ‘মিরসরাইয়ে ভারতীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের নিমিত্ত ভূমি অধিগ্রহণ’ নামে একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। এটি বাস্তবায়ন হলে মিরসরাইয়ে ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করা সম্ভব হবে বলে মত দিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এর ফলে বৈদেশিক মুদ্রার উপার্জন বৃদ্ধি এবং দেশে ব্যাকওয়ার্ড-ফরওয়ার্ড লিংকেজ শিল্পের বিকাশ হবে। এছাড়া উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দক্ষ কর্মশক্তি গড়ে তোলা যাবে। এতে খরচ ধরা হয়েছে ৮৪৫ কোটি ৮৩ লাখ টাকা।

পরিকল্পনা কমিশনের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, ‘প্রস্তাব পাওয়ার পর প্রকল্পটি নিয়ে গত বছরের ৭ মে প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় দেওয়া বিভিন্ন সুপারিশ পালন করায় প্রকল্পটি একনেকে অনুমোদনের জন্য তোলা হচ্ছে। আগামী জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদন পেলে চলতি বছর থেকে ২০২০ সালের জুনের মধ্যে এটি বাস্তবায়ন করবে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা)।’

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্র জানায়, বাংলাদেশ সম্প্রতি সব নির্ণায়ক পূরণ করে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে। এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে দেশে দ্রুত শিল্পায়নের মাধ্যমে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য সরকার বিভিন্ন পরিকল্পনা নিয়েছে। এ সব পরিকল্পনার অংশ হিসেবে পরিকল্পিত শিল্পায়নের মাধ্যমে দ্রুত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনের জন্য স্থানীয় এবং বৈদেশিক বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য বাংলাদেশ সরকার খোলা দ্বার নীতি নিয়েছে। এই নীতির আলোকে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা) অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে স্থানীয় ও বৈদেশিক বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।’

সূত্র আরও জানায়, দেশের সুষম উন্নয়ন নিশ্চিত করতে সরকার বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন স্থানে ২০১৫ সাল থেকে ২০৩০ সালের মধ্যে ১৫ বছরে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গঠনের পরিকল্পনা নিয়েছে। এরইমধ্যে ২০১৮ সালের জুনে মোট ৭৯টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠানের অনুমোদন দেওয়া হয়, যার মধ্যে ৫৬টি সরকারি এবং অবশিষ্ট ২৩টি বেসরকারিভাবে প্রতিষ্ঠা করা হবে।

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল আইন-২০১০ অনুযায়ী জি টু জি (সরকার থেকে সরকার) চুক্তির আওতায় বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চল গঠনের সুযোগ রয়েছে। এ উদ্দেশে চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই উপজেলায় মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের জন্য একটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার সিদ্ধান্ত হয়। এজন্য ১ হাজার একর ভূমি অধিগ্রহণের জন্য বেজা কর্তৃক সরকার থেকে ১ শতাংশ সুদে ঋণ নেওয়ার মাধ্যমে এই প্রকল্পটি বাস্তবায়নের প্রস্তাব করা হয়েছে। ভূমি অধিগ্রহণ প্রকল্প বাস্তবায়নের পর ভারতীয় বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা হলে প্রস্তাবিত এলাকায় ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধিসহ কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

এছাড়া রাজধানী ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ শহর অভিমুখে জনসাধারণের অভিবাসন প্রক্রিয়া কমে যাবে। দেশে বিনিয়োগ বৃদ্ধিসহ সুষম উন্নয়ন নিশ্চিত হবে। এ জন্য প্রস্তাবিত প্রকল্পটির ওপর গত বছরের ৭ মে অনুষ্ঠিত প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভায় এটি অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করা হয়।

প্রকল্পের প্রধান কার্যক্রম হচ্ছে, একহাজার একর ভূমি অধিগ্রহণ, জনবলের বেতন-ভাতা ও ভ্রমণ ব্যয়, একটি মাইক্রোবাস, ২টি ল্যাপটপ ও দু’টি ট্যাব ক্রয় এবং মুদ্রণ, বাঁধাই করা হবে।

পরিকল্পনা কমিশনের শিল্প ও শক্তি বিভাগের সদস্য শামীমা নার্গিস পরিকল্পনা কমিশনের মতামত দিতে গিয়ে বলেছেন, ‘ভারতীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপিত হলে প্রস্তাবিত এলাকায় শিল্প-উৎপাদন ও ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধির মাধ্যমে বিপুল সংখ্যক নারী ও পুরুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। এছাড়া রাজধানী ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ শহর অভিমুখে জীবিকার অন্বেষণে জনসাধারণের অভিবাসন প্রক্রিয়া কমে যাবে। দেশে বিনিয়োগ বৃদ্ধিসহ সুষম উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে।’

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top