এমপিও বঞ্চিত বেসরকারি অনার্স-মাস্টার্স কলেজ শিক্ষকদের মানববন্ধন-স্মারকলিপি

Cox-Non-Govt-Teachers-Humanchain-pic.jpg

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত বেসরকারি কলেজে অনার্স-মাস্টার্স কোর্সে নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ-মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বাংলাদেশ বেসরকারি কলেজ অনার্স-মাস্টার্স শিক্ষক সমিতি কক্সবাজার জেলা শাখার আয়োজনে বুধবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণে এ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।
দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষকতা করেও এমপিও বঞ্চিত বেসরকারি কলেজের শিক্ষক শিক্ষিকারা এই মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে। ‘শিক্ষকদের ২৭ বছরের বঞ্চনার অবসান হোক’ এই স্লোগানে শিক্ষকরা দীর্ঘদিন ধরে ব্যাপক আন্দোলন করে আসছে। বুধবারের আন্দোলন কর্মসূচির অংশ হিসেবে মানববন্ধন শেষে স্মারকলিপিও প্রদান করে এমপিও বঞ্চিত শিক্ষকরা।
জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ সংশোধন করে বাস্তবসম্মত নীতিমালা প্রণয়নের দাবিতে শিক্ষকদের ওই স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, সারাদেশে ২০৩ টি বেসরকারি কলেজে সাড়ে ৩ হাজারের অধিক শিক্ষক প্রায় ৮ লক্ষ শিক্ষার্থীকে পাঠদান করে আসছে। কিন্তু বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ এ প্রায় সাড়ে তিন হাজার বেসরকারি শিক্ষকে বঞ্চিত করা হয়েছে। সরকারের বিভিন্ন বিভাগকে যথাযথ মূল্যায়ন করা হলেও ‘মানুষ গড়ার কারিগর’ খ্যাত শিক্ষকরা বরাবরই অবহেলিত ও বঞ্চিত। এমপিও না হওয়ায় অনেক শিক্ষক মানবেতর জীবন যাপন করছে। মৌলিক অধিকার বিবেচনায় আন্দোলনরত শিক্ষকরা শীগ্রই এমপিওভুক্তির দাবি তোলেন।
সংগঠনটির কক্সবাজার জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইকবাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি নুরুল আবছার সিকদার, জেলা সহ-সভাপতি মুবিনুল হক, মেঘলা দেব, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক রুমেনা আক্তার, উখিয়া কলেজ শাখা সভাপতি ফরিদুল আলম।
জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক কাজলের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন- কক্সবাজার সিটি কলেজের প্রভাষক আনোয়ার জাহেদ (রাসেল), আবুল আ’লা শিবলী, মুবিনুল হক, ক্য খিং রাখাইন, আব্দুল করিম, তৌহিদুল ইসলাম, বিভীষণ চন্দ্র দে, জহিরুল হক, পবন পাল, মুজাহিদুল ইসলাম, আব্দুর রহিম, জাহাঙ্গীর আলম, আরিফুল ইসলাম, ওমর ফারুক, আমানত উল্লাহ সাকিব, নুরুল মাসুদ ভুঁইয়া, নুরুল হোসাইন, নজির আহমদ প্রমুখ।
মানববন্ধন শেষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান মোল্লা (সার্বিক) এর মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেন শিক্ষকরা। এসময় কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য এডভোকেট ফরিদুল আলমসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top