ভোটারদের আগ্রহে প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি নিয়েই উপজেলা নির্বাচন করছি : কাজল

Presentation1-119.jpg

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

রামু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সম্মতি নিয়েই নির্বাচনে অবতীর্ণ হচ্ছি ইনশাল্লাহ। উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্য রামু উপজেলার সাধারণ ভোটার, দলের সর্বস্থরের নেতাকর্মী, পেশাজীবী, শ্রমজীবী, দিনমজুর, খেটেখাওয়া মানুষ, ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে সর্বস্তরের মানুষের আগ্রহের কথা বিবেচনা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে জাতীয় সংসদের কার্যালয়ে রোববার ২৪ ফেব্রুয়ারি সাক্ষাত করলে তিনি নির্বাচন করার জন্য এ সম্মতি প্রদান করেছেন। রামু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও রামু উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সোহেল সরওয়ার কাজল একথা বলেন।

সোমবার ২৫ ফেব্রুয়ারি রাত্রে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতি’র বর্ধিত ভবনে সিবিএন-কে প্রদত্ত এক সাক্ষাতকারে রামু উপজেলা আওয়ামীলীগের সফল সভাপতি সোহেল সরওয়ার কাজল বলেন-দীর্ঘদিন ধরে রামু উপজেলার মানুষ তাদের অধিকার বন্ঞ্চিত, মানুষ তাঁদের ন্যায্য হক আদায়ের জন্য একজন খাদেম খুঁজছেন। আমি মানুষের সেই কাংখিত অধিকার ও বর্তমান সরকারের সুযোগ সুবিধা সকলের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে বদ্ধ পরিকর। এজন্য সোহেল সরওয়ার কাজল মহান আল্লাহতায়লার অসীম রহমত, রামু’র সর্বস্থরের নাগরিকের আন্তরিক সহযোগিতা, দোয়া ও আশীর্বাদ কামনা করে বলেন-যে কোন মূল্যে, যে কোন পরিস্থিতিতে নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ করা হবে ইনশাল্লাহ।

নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা-তার জবাবে সোহেল সরওয়ার কাজল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে এ বিষয়ে নিশ্চয়তা দিয়েছেন বলে জানান। তিনি জনগণগনকে সকল ভয়ভীতির উর্ধ্বে থেকে রামু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার আহবান জানান। বিশিষ্ট সমাজকর্মী সোহেল সরওয়ার কাজল বলেন-কোন উচ্চ অভিলাষের উদ্দ্যেশে নয়, গণমানুষকে সেবা দিতে এবং রামুকে একটি মডেল উপজেলা হিসাবে গড়ে তুলতেই নির্বাচন করছি। সোহেল সরওয়ার কাজল বলেন-রামু’র গণমানুষের ভালবাসার প্রতি মূল্যায়ন করতে আমি আমার জীবন উৎসর্গ করবো। মানুষের প্রতি আমার শতভাগ আত্মবিশ্বাস ও ভোটারদের প্রেরনা নিয়ে নির্বাচনকে স্বচ্ছ, গ্রহনযোগ্য ও উৎসবমুখর করে তুলার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে সোহেল সরওয়ার কাজল বলেন-স্বাধীনভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগের এই সুযোগকে ভোটারেরা আশা করছি কাজে লাগাবে ইনশাল্লাহ।

সোহেল সরওয়ার কাজল বলেন-রামু উপজেলা আওয়ামীলীগ ও কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগ থেকে রামু উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে আমাকে একক প্রার্থী হিসাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে কেন্দ্রে প্রেরণ করা হলেও অজ্ঞাত কারণে আমাকে মনোনয়ন দেয়া হয়া হয়নি। ফলে রামু’র মানুষ হতাশ হলেও আমি প্রধানমন্ত্রীর কথায় উৎসাহিত হয়ে মানুষের আশা পুরন করবো ইনশাল্লাহ। সোহেল সরওয়ার কাজল প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত করতে গিয়ে এবং অন্যান্য বিষয়ে ঢাকায় অবস্থান করায় রামু উপজেলায় সকলের সাথে সময়মতো দেখা করতে ও কথা বলতে নাপারায় তিনি সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তিনি মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় মঙ্গলবার বিকেল আড়াইটায় সকলকে রামু স্বপ্নপূরী কমিউনিটি সেন্টারে উপস্থিত থাকার জন্য সবিনয় অনুরোধ জানিয়েছেন। সোহেল সরওয়ার কাজলের লিগ্যাল এডভাইজার এডভোকেট বাপ্পী শর্মা জানান-সোহেল সরওয়ার কাজলের মনোনয়নপত্র পূরণ করে সম্পূর্ণ প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

মঙ্গলবার ২৬ ফেব্রুয়ারি বিকেল তিনটার দিকে রামু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও রামু উপজেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করবেন বলে এডভোকেট বাপ্পী শর্মা জানান। সাক্ষাতকার প্রদানকালে কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সোহেল সরওয়ার কাজলের ছোটবোন নাজনীন সরওয়ার কাবেরী, রামু উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শামশুল আলম মন্ডল, অর্থ সম্পাদক নুরুল ইসলাম সেলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক সম্পাদক ইউনুছ রানা চৌধুরী, নুরুল হক চৌধুরী, রাজারকুল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সরওয়ার কামাল সোহেল, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ওবাইদুল হক, একই ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আকতার কামাল প্রমুখ সাথে ছিলেন। উল্লেখ্য, রামু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজউল আলম কে আবার মনোনয়ন দিয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top