১৪ দলে না আসলে দিলীপ বড়ুয়াকে চিনতো কে: আমু

-2.png

নিউজ ডেস্ক

পুরান ঢাকার চকবাজারে কেমিক্যাল গোডাউন ও কারখানা সরানো নিয়ে সাবেক শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়ার অভিযোগকে নাকচ করে দিলেন সদ্যবিদায়ী শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। তিনি দাবি করেন, ‘তিনি (দিলীপ বড়ুয়ার) নিজে প্রশ্নের সম্মুখীন হতে পারেন, এমন আশঙ্কা থেকেই আগাম কথা বলেছেন।’

আজ সোমবার সকালে রাজধানীর ইস্কাটনের নিজ বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন আমির হোসেন আমু। তিনি আরও বলেন, ‘আমি দীলিপ বড়ুয়ার নাম কোথাও পাইনি।

যেটা আমি দেখলাম সেটা হচ্ছে, চার মাস পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সভাপতিত্বে একটা মিটিং হয়, সেই মিটিংয়ে এটা টাস্ক ফোর্স হয়েছিল। সেই মিটিংয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিসিকের চেয়ারম্যানের অধীনে একটা কমিটি হয়, তাদেরকে দায়িত্ব দেওয়া হয় জায়গা নির্ধারণের জন্য।’

এ সময় দিলীপ বড়ুয়াকে কটাক্ষ করে আমু বলেন, ‘১৪ দলে না আসলে তাদের চিনতো কে?’ গত শনিবার এক সভায় সাবেক শিল্পমন্ত্রী ও সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া অভিযোগ করেন, ‘আমাদের যিনি শিল্পমন্ত্রী ছিলেন (আমু), উনি যদি সিরিয়াসলি বিষয়টি টেকআপ করতেন, তা হলে হয়তো এতদিনে পুরান ঢাকার কেমিক্যাল গোডাউন রিলোকেট করা সহজ হতো।’

দুপুরে রাজধানীর চকবাজারের চুড়িহাট্টা এলাকায় অগ্নিকাণ্ডস্থল পরিদর্শনে গিয়ে দিলীপ বড়ুয়া বলেন, ‘কেমিক্যাল বিজনেস রি-লোকেট করার জন্য আমি মন্ত্রী থাকাকালে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, কেমিক্যাল মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন ও বিসিকও সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, ঢাকার বাইরে গোডাউন স্থানান্তর করা হবে। এটি আমাদের প্রতিজ্ঞা ছিল। কিছু ডিসক্রিট ব্যাপারের কারণে পুরো ব্যাপারটি এগোয়নি।’

দিলীপ বড়ুয়া বলেন, ‘যারা স্টেকহোল্ডার আছেন, তারা সরকারকে বাধ্য করতে পারেনি। ভবন মালিকদেরও দায় আছে। তারা বেশি ভাড়া পাওয়ার জন্য গোডাউন ভাড়া দেন এবং ব্যাপারটি লুকিয়ে রাখেন।’

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top