সংরক্ষিত মহিলা আসনে চুড়ান্ত মনোনয়নে কানিজ ফাতেমা

Presentation1-10.jpg

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার অন্ঞ্চলের সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য পদে কক্সবাজার জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভানেত্রী ও কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তাক আহামদ চৌধুরীর সহধর্মিনী কানিজ ফাতেমা আহামদ’কে আওয়ামীলীগ থেকে চুড়ান্ত মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। শুক্রবার ৮ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে দশটার দিকে গণভবনে সংরক্ষিত মহিলা মহিলা আসনে চুড়ান্ত মনোনয়নপ্রাপ্তদের নাম ঘোষনার সময় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের অন্যান্য চুড়ান্ত প্রার্থীদের সাথে কানিজ ফাতেমা আহামদের নামও ঘোষনা করেন। যাহা গণমাধ্যমে লাইভ প্রচার করা হয়েছে। বএর আগে আওয়ামীলীগের সংসদ সদস্য মনোনয়ন ও স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের যৌথ সভা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গণভবনে অনুষ্ঠিত হয়। মনোনয়ন বোর্ডের হাতের লেখা তালিকায় কানিজ ফাতেমা আহমদের নাম ২৬ নম্বরে রয়েছে। এদিকে, সংরক্ষিত আসনে মহিলা আসনের সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন পাওয়ার কথা নিশ্চিত করে ঢাকা থেকে এ প্রতিবেদককে মুঠোফোনে কানিজ ফাতেমা আহমদ তাঁর প্রতিক্রিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সহ মনোনয়ন বোর্ডের সকলের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও মহান আল্লাহতায়লা নিকট শোকরিয়া জ্ঞাপন করেছেন। তিনি কক্সবাজার জেলাবাসীর কাছে দোয়া সহযোগিতা চেয়েছেন।
জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য বিদ্যমান কোটা অনুযায়ী ৪৩ জন হলেও শুক্রবার রাতে ৪১ জনের নাম ঘোষণা করে আওয়ামীলীগ।
ঘোষিত তালিকায় যারা চুড়ান্ত মনোনয়ন পেলেন-
আনজুম সুলতানা (কুমিল্লা), সুলতানা নাদিরা (বরগুনা), হুসেন আরা (জামালপুর), রুমানা আলী (গাজীপুর), উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম (ব্রাহ্মণবাড়িয়া), হাবিবা রহমান খান সেফালী (নেত্রকোনা); শেখ এ্যানী রহমান (পিরোজপুর); অপরাজিতা হক (টাঙ্গাইল); শামীমা আক্তার খানম (সুনামগঞ্জ); শামসুন নাহার ভূইয়া (গাজীপুর); ফজিলাতুন্নেসা (মুন্সীগঞ্জ); রাবেয়া আলী (নীলফামারী); তামান্না নুসরা বুবলি (নরসিংদী); নার্গিস রহমান (গোপালগঞ্জ; মুনিরা সুলতানা (ময়মনসিংহ); নাহিদ ইজহার খান (ঢাকা); সালেহা খানম (ঝিনাইদহ); সৈয়দা রুবিনা মিরা (বরিশাল); ওয়াসিফা আয়েশা খান (চট্টগ্রাম); কাজী কানিজ সুলতানা (পটুয়াখালী) গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার (খুলনা)।
সুবর্ণা মোস্তফা (ঢাকা); জাকিয়া তাবসসুম (দিনাজপুর); ফরিদা খানম সাকি (নোয়াখালী); বাসন্তি চাকমা (খাগড়াছড়ি); কানিজ ফাতেমা আহমেদ (কক্সবাজার); রুমেনা বেগম (ফরিদপুর); সৈয়দা রাশিদা বেগম (কুষ্টিয়া); সৈয়দা জোহরা আলাউদ্দিন (মৌলভীবাজার); আদিবা আনজুম মিতা (রাজশাহী) আরোমা দত্ত (কুমিল্লা); শিরীনা নাহার (খুলনা); ফেরদৌসী ইসলাম জেসি (চাঁপাইনবাবগঞ্জ); পারভীন হক শিকদার (শরীয়তপুর); খাদেজা নুসরাত (রাজবাড়ী); শবনব জাহান শিলা (ঢাকা); খাদিজাতুল আনোয়ার (চট্টগ্রাম); জাকিয়া পারভীন খানম (নেত্রকোনা); তাহমিনা বেগম (মাদারীপুর); শিরিন আহমেদ (ঢাকা); জিন্নাতুল বাকিয়া (ঢাকা)।
এবার সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে জমা দিয়েছিলেন ১৫১০ জন। গত ১৫ থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত এই ফরম বিক্রি করে দলটি। বিদ্যমান আইন অনুযায়ী, সরাসরি ভোটে জয়ী দলগুলোর আসন সংখ্যার অনুপাতে মহিলা আসন বণ্টন করা হয়। প্রতি ৬টি আসনের বিপরীতে যে কোনো দল বা জোট ১টি সংরক্ষিত আসন পেয়ে থাকে। আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব পদ্ধতিতে এবার ৫০টি সংরক্ষিত আসন বণ্টন করা হবে। ইসি সচিব এ বিষয়ে জানিয়েছেন, আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব পদ্ধতিতে এবার আওয়ামী লীগ ৪৩টি। কিন্তু আজ আওয়ামী লীগ ৪১ জনের নাম ঘোষণা করেন। জাতীয় পার্টি ৪টি, বিএনপি ১টি, অন্যান্য দল ১টি (ওয়ার্কার্স পার্টি) ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জোটভুক্ত হয়ে ১টি সংরক্ষিত আসন পাবেন।
এ নির্বাচনে অংশ নিতে আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া যাবে। ১২ ফেব্রুয়ারি বাছাইয়ের পর প্রত্যাহার করা যাবে ১৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top