চট্টগ্রাম-১০ আসনে নৌকার মাঝি হতে মনোনয়ন ফরম নিল মন্জুর

download-1.jpeg

আবুল কালাম,চট্টগ্রাম :

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ডবলমুরিং (চট্টগ্রাম-১০) আসনের নৌকার মাঝি এবং নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নিলেন চট্টগ্রামের সাবেক সিটি মেয়র এম মনজুর আলম।

শনিবার (১০ নভেম্বর) বাংলা দেশ আওয়ামী লীগ সভাপতির ঢাকা ধানমণ্ডি দলীয় কার্যালয় হতে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন তারই চাচাতো ভাই আবুল কালাম আজাদ।

এম মনজুর আলম বলেন, ‘নৌকা প্রতীকে নির্বাচন অংশ নিতে ঢাকা থেকে দলীয় একটি মনোনয়ন ফরম কিনেছি। আওয়ামী লীগ থেকে সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবো। আশা করি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড আমাকে চট্টগ্রাম-১০, ডবলমুরিং আসন থেকে মনোনয়ন দেবেন।’

২০১০ সালে বিএনপির সমর্থন নিয়ে এম মনজুর আলম চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন। এসময় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও তিনবারের সাবেক সিটি মেয়র প্রয়াত এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীকে পরাজিত করেছিলেন।

সিটি মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর এম মনজুর আলমকে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল।

পরবর্তীতে ২০১৫ সালে পুনরায় বিএনপির মনোনয়ন পেয়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশ মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন। যদিও ভোট শুরুর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ভোট কারচুপির অভিযোগ তুলে নির্বাচন বর্জন করেছিলেন। পাশাপাশি বিএনপির রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ান।

এরপর থেকে চট্টগ্রাম-১০ ডবলমুরিং আসনে সংসদ সদস্য পদে নির্বাচনে অংশ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করে সামাজিক কর্মকাণ্ড ও আওয়ামী লীগের বিশেষ দিনে নানা কর্মসূচি পালন করে আসছিলেন।

এ আসনে বর্তমানে সংসদ সদস্য হিসেবে আছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী ডা. আফসারুল আমীন।

১৯৯৪ সাল থেকে টানা ১৬ বছর প্রয়াত চট্টলবীর এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী সিটি মেয়রের দায়িত্ব পালনকালে মনজুর আলম ছিলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর। একাধিকবার ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্বও পালন করেন মনজুর আলম।

এছাড়াও মনজুর আলম আওয়ামী লীগের আদর্শ ধারণ করে দীর্ঘদিন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মায়ের নামে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা ফাউন্ডেশন ও মোস্তফা হাকিম ফাউন্ডেশন গঠন করে বিভিন্ন স্কুল, কলেজ প্রতিষ্ঠাসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছেন।

যত বার কাউন্সিলর ও মেয়রের দায়িত্বে ছিলেন এলাকার উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখেন।
তিনি আরও আশাবাদী জনপ্রিয়তার শীর্ষে এখনও তিনি। জনগনের ভালবাসাই তিনি আবারও জনসেবায় জনগনের মাঝে ফিরে আসবেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top