পথে পথে এত বাধা তারপরও নেতা-কর্মীদের ঢল

363373_155.jpg
বিপুল নেতা-কর্মীর উপস্থিতি শীর্ষ নেতার উজ্জীবিত করেছে। - ছবি: সংগৃহীত

বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তি ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ৭ দফা দাবিতে রাজশাহীতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট একটি সফল জনসভা করেছে। জনসভায় সকল বাধা উপেক্ষা করে বিএনপিসহ জোটের নেতাকর্মীদের ঢল নেমেছে।

শুক্রবার (৯ নভেম্বর) দুপুর ২টায় রাজশাহী মহানগরীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা ময়দানে এই সমাবেশ শুরু হয়। বিকেলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যের মাধ্যমে সমাবেশ শেষ হয়।

মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, এলডিপির সভাপতি কর্ণেল অলি আহমেদ বীর বিক্রম, বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীসহ ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বিভিন্ন জেলা থেকে রাজশাহী অভিমুখে বাস-ট্রাক চলাচল বন্ধ করে দেয়া হলেও সকাল থেকেই বিকল্প পথ হিসেবে নৌকা, ট্রেন বা ছোট ছোট যানবাহন ব্যবহার শহরের বিভিন্ন পয়েন্ট জড়ো হোন বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্ট নেতারা। সমাবেশস্থল রাজশাহী মহানগরীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসায় জেডিসি পরীক্ষা চলায় দুপুর ১টার পর মাদ্রাসা ময়দানে যোগ দেন নেতাকর্মীরা। সমাবেশ শুরুর আগেই নেতা-কর্মীদের উপস্থিতি সমাবেশস্থল ছাড়িয়ে আশে-পাশের রাস্তা-ঘাট পরিপূর্ণ হয়ে যায়।

তবে নেতাকর্মীদের অভিযোগ জনসভায় আসতে তাদের বাধা দেয়া হয়েছে। ধর্মঘটের নামে বাস-ট্রাক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। রাজশাহীর আশপাশের জেলাগুলো থেকে আসা নেতাকর্মীদের প্রবেশ পথে তল্লাশি করা হয়েছে। অনেক মিছিলে বাধা দেয়া হয়েছে। তাদের ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক বাগমারার এক বিএনপির নেতা জানান, অনেক কষ্ট করে সমাবেশে এসেছিন তিনি। রাজশাহী জেলায় মুলত এই সমাবেশে বিএনপির নেতা-র্মী ও সমর্থকেরাই আসবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top