টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত : অস্ত্র,গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার

Screenshot_2018-11-10-10-37-58-693_com.facebook.katana.jpg

বন্দুক যুদ্ধে নিহত এক যুবকের লাশ  উদ্ধধার করেছে পুলিশ৷ পুলিশের দাবী সে তালকাভূক্ত ইয়াবা কারবারী ৷

জানা যায়, ১০ নভেম্বর শনিবার ভোর রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার হ্নীলা দরগাহপাড়া সংলগ্ন আশ্রয় কেন্দ্র এলাকায় ইয়াবা কারবারী দুই গ্রুপের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে ইয়াবা কারবারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এসময় পুলিশের কনস্টেবল আজিজ (২৩), মেহেদী হাসান (২১) ও হেলাল (২২) আহত হয়। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে গুলিবর্ষণ করলে ইয়াবা কারবারীরা পিছু হঠে যায়। এরপর ঘটনাস্থল থেকে একটি মৃতদেহ, ৩টি দেশীয় তৈরী অস্ত্র, ১৮ রাউন্ড বুলেট, ১৩টি খোসা ও ১৫ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করা হয় বলে পুলিশ সুত্রে জানায়।

আহত পুলিশ সদস্যদের উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেলে সে হ্নীলা পশ্চিম সিকদার পাড়ার ছৈয়দ আহমদ ছৈয়তুর পুত্র জিয়াউল বশির শাহীন ওরফে শহীদ (৩২) বলে সনাক্ত করা হয়। লাশ পোস্টমর্টেমের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাস সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,এঘটনায় পুলিশের উপর হামলা, ইয়াবা ও অবৈধ অস্ত্রসহ পৃথক মামলা দায়ের করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য শাহীন গতকাল হ্নীলা দারুস্সুন্নাহ মসজিদে  জুমার নামাজ পড়তে গেলে সাদা পোষাকে ৮/১০ জনের একটি দল মাইক্রো বাসে করে তুলে নিয়ে যায় বলে পরিবার দাবী করে আসছিল ৷

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top