ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজকে একবছরের মধ্যে সরকারি করন করা হবে- কমল

Screenshot_5-1.jpg

সোয়েব সাঈদ, রামু:

কক্সবাজার সদর ও রামুকে শিক্ষার নগরী হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি, আমাদের সময়ে সদর ও রামুতে ১৯টি উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছি। কক্সবাজারের সকল কলেজে অনার্স কোর্স চালু হয়েছে। ঈদগাহকে উপজেলায় রূপান্তরের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে, আগামী এক বছরের মধ্যে ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজকে সরকারি করন করা হবে। মহানবী হযরত মুহাম্মদ(স.) বলেছিলেন, শিক্ষা অর্জনে সুদুর চীন দেশে হলেও যেতে হবে। শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমেই শিক্ষার্থীকে যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। উচ্চ শিক্ষা অর্জনে যে সমস্ত শিক্ষার্থী বিদেশ যাওয়ার সুযোগ পায় তাদের যাওয়ার ব্যবস্থা করছেন তিনি। ভবিষ্যতে সহায়তা দেয়া হবে।

সোমবার (৫ নভেম্বর) বেলা ১ টায় ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজের নবীন বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দূর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। এ এগিয়ে যাওয়ার সাথে আমরা সম্মিলিত প্রচেষ্টায় কক্সবাজার সদর-রামুকে উন্নয়নে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। এ উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে আগামী নির্বাচনে শেখ হাসিনার প্রার্থীকে নৌকা প্রতীকে বিজয়ী করতে হবে।

ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজের অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা’র সভাপতিত্বে নবীন বরণের আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর মো: জাহেদুল হক, ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজ গভর্ণিং বডির সভাপতি ও সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আবু তালেব, রামু উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক নীতিশ বড়–য়া, ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজ গভর্ণিং বডির সদস্য যুবলীগ নেতা মিজানুল হক।

শিক্ষকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, নবীন বরণ কমিটির আহবায়ক, কলেজের বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক জেবুন্নেছা সায়েরা, অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম, মো: জসিম উদ্দিন। শিক্ষার্থীদের পক্ষে প্রাক্তন ছাত্র আবু হেনা বিশাদ, ¯œাতক ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী শওকত আরা, আবু তাহের, সালাহ উদ্দিন, একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী রাইহান উদ্দিন, মোজাম্মেল হক প্রমুখ।

নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে মানপত্র পাঠ করেন দ্বাদশের শিক্ষার্থী শেকুরা ইসলাম, গ্রহন করেন একাদশের শিক্ষার্থী শাবনুর আকতার। ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করেন দ্বাদশের শিক্ষার্থী জান্নাতুল ওমালিয়া, গ্রহন করেন নবীনদের পক্ষে একাদশের শিক্ষার্থী তাহমিনা আক্তার মিনা। আলোচনা সভা শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top