বিএনপির প্রার্থী সরে দাঁড়াবে প্রত্যাশা জামায়াতের

d6be6a04cd07bd0d7f41b2bc1438c9c4-5b599a9cd3afe.jpg

দিসিএম ডেস্ক

সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী শেষ মুহূর্তে সরে দাঁড়াবেন বলে আশা করছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী নগর জামায়াতের আমির এহসানুল মাহবুব জুবায়ের। একই সঙ্গে বিএনপির সমর্থনও তাঁর ওপর থাকবে বলে তিনি আশা করছেন।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় সিলেট মহানগর জামায়াতের আমির ও স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী এহসানুল মাহবুব জুবায়ের তাঁর নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন। এ সময় তিনি এমন প্রত্যাশার কথা জানান।

গতকাল বুধবার বিকেলে সিলেটে এক সংবাদ সম্মেলনে ২০ দলীয় জোটের শরিক লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি অলি আহমদ জামায়াত ইসলামীকে মেয়র প্রার্থী সরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তিনি গতকাল বলেছিলেন, ‘জামায়াতের কারণে বিএনপির প্রার্থীর ক্ষতি হবে, ২০-দলীয় জোটের ঐক্যের ক্ষতি ব্যাপক আকার ধারণ করতে পারে। অনুরোধ করব, জামায়াত শেষ মুহূর্তে হলেও নমনীয় হয়ে বিএনপির পাশে দাঁড়াবে, প্রার্থী প্রত্যাহার করে নেবে।’

অলি আহমদের কথার পরিপ্রেক্ষিতে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে এহসানুল মাহবুব বলেন, ‘আমরা তো ২০-দলীয় জোটের প্রার্থিতা চেয়েছিলাম। আমাদের প্রত্যাশা, তারা আমাদের সমর্থন দেবেন। জোটের স্থানীয় পর্যায়ের অধিকাংশ নেতা এখানে উপস্থিত আছেন। উঠোন বৈঠক, গণসংযোগ, পথসভা সবখানেই জোটের নেতারা আমাদের সঙ্গে থাকেন। তাই এখনো আমরা সমর্থন পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী।’

সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কি না, অথবা কোনো আশঙ্কা রয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে এহসানুল মাহবুব বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন আমাদের নিয়ে মতবিনিময় করেছিলেন। সেখানে আমাদের আশঙ্কা, অতীতের অভিজ্ঞতা, গাজীপুর ও খুলনার বিষয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছি। তারা আশ্বস্ত করেছে, এক শ ভাগ ফ্রি অ্যান্ড ফেয়ার ইলেকশন হবে। খুলনা ও গাজীপুরে কিছু সমস্যা হলেও সিলেটে কোনো সমস্যা হবে না বলেও তারা জানিয়েছে। কিন্তু এমন কিছু আলামত দেখা গেছে, আমাদের মধ্যে উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা কাজ করছে। আমাদের অনেক নেতা-কর্মীর ওপর হামলা হয়েছে। পুলিশ সাম্প্রতিক মামলায় আমাদের নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করছে। আমরা নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছে। এরপরও আমরা আশা রাখতে চাই।’

এর আগে এহসানুল মাহবুব তাঁর নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন। নির্বাচিত হলে পরিচ্ছন্ন, সবুজ, আলোকিত ও স্মার্ট নগর গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, ‘সিলেট হবে সুশাসনের, নগর হবে জনগণের।’ ফুটপাত দখলমুক্তকরণ ও সম্প্রসারণ, হকারদের জন্য হলিডে মার্কেট চালু, জলাবদ্ধতামুক্ত নগর, বিশুদ্ধ পানির অভাব দূরসহ নানা ধরনের সুবিধা নিশ্চিত করবেন বলে জানিয়েছেন।

ইশতেহার ঘোষণা অনুষ্ঠানে জামায়াতের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাদের পাশাপাশি লেবার পার্টির মহানগর সভাপতি মাহবুবুর রহমান খালেদ, বিজিবির (পার্থ) মহানগরের সদস্যসচিব নুরুল আম্বিয়া রিপন, ইসলামী ঐক্যজোটের মহানগরের সভাপতি জহুরুল ইসলাম, জাগপা মহানগরের সভাপতি শাহজাহান কবীর রিপন, এনডিপি জেলার সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: প্রথম আলো

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top