বহিরাগত অস্ত্রধারী আওয়ামী সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করুন

FB_IMG_1532337459765.jpg

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

মেয়রপ্রার্থী সরওয়ার কামালের ১০ দফা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা উপলক্ষে সাংবাদিক সম্মেলন

নাগরিক কমিটি মনোনিত নারিকেল গাছ প্রতীকে মেয়র পদপ্রার্থী সাবেক সফল মেয়র সরওয়ার কামাল ২২ জুলাই বিকাল ৫টায় তারাবনিয়াছড়াস্থ নির্বাচনী প্রধান কার্যালয়ে নির্বাচনী ইশতিহার ঘোষনা উপলক্ষে এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন। সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করে বলেছেন বর্তমানে শহরের বিভিন্নস্থানে বহিরাগত অস্ত্রধারী আওয়ামী সন্ত্রাসীরা অবস্থান করছে। যে কোন সময় অপ্রীতিকর ঘটনা সংঘটিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে আমি অবিলম্বে এসকল বহিরাগত অস্ত্রধারী আওয়ামী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি। তিনি আরো বলেন, পুলিশ আ’লীগ প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করার জন্য আমার নির্বাচনী নেতাকর্মীর বাড়ি বাড়ি তল্লাশির নামে হয়রানি করছে। ডিবি পুলিশ ভোটকেন্দ্রে গিয়ে গিয়ে নারিকেল গাছ মার্কার এজেন্টের নাম সংগ্রহে নেমে পড়েছে। এসব কি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের লক্ষণ? নাকি আওয়ামীলীগ প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ প্রশাসনের তৎপরতা ? পৌরবাসী আজ জানতে চায়। তিনি অবিলম্বে নেতাকর্মীদের হয়রানি বন্ধ এবং ভোটের আগেই মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীর মুক্তি দাবি করেন। পুলিশের এহেন পক্ষপাতিত্বমূলক আচরণ বন্ধে জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। একটি সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠান করে পৌরবাসীর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা অবসানের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। পরে তিনি ১০ দফা নির্বাচনী ইশতিহার ঘোষণা করেন। সাংবাদিক সম্মেলনে নাগরিক কমিটির আহবায়ক গোলাম কিবরিয়া, শ্রমিকনেতা মামুনুর রশিদসহ বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক, প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ার প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।
ইশতিহারের উল্লেখযোগ্য কতিপয় দিক-
আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে গতিশীল পৌর প্রশাসন এবং পৌর কার্যালয়কে জনগণের “সেবাঘর” হিসেবে গড়ে তোলা। পর্যটন শহরে পর্যটকদের জন্য আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন সেবা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করে কক্্সবাজার শহরকে বিশ্বের মাঝে আরো বেশি করে পরিচিত করানো উদ্যোগ গ্রহণ। জলাবদ্ধতা নিরসনে ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন। যানজট নিরসনে ৩টি “সাবওয়ে” বা শহরে প্রবেশের বিকল্প সড়ক নির্মাণ। নিরাপদ ও সুপেয় পানি সরবরাহের লক্ষে পানি শোধনাগার কেন্দ্র স্থাপন এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য “ডাম্পিং স্টেশন” কে পূর্ণাঙ্গ রূপদান। প্রতিটি ওয়ার্ডে মডেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা। শিক্ষিত ও ¯^ল্পশিক্ষিত যুবকদেরকে পর্যটনসহ কর্মমূখী বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা অর্জনের জন্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্র চালু করে বেকারত্ব দূরীকরণ। তরুণ ও যুবসমাজকে মাদকের ভয়াবহ থাবা রক্ষা করে তাদের জন্য ক্রীড়া ও সাহিত্য-সাংস্কৃতিক কার্যক্রম জোরদারকরণ কর্মসূচী গ্রহণ। “হেলথ ট্যুরিজম”কে অগ্রাধিকার দিয়ে আন্তর্জাতিক মানের চিকিৎসাকেন্দ্র নির্মাণের উদ্যোগ এবং সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত সমাজ গঠনে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে কমিটি গঠন। এসকল অগ্রাধিকারমূলক কর্মকান্ড বাস্তবায়নে মহান আল্লাহর সাহায্য ও পৌরবাসীর সমর্থন ও দোয়া কামনা করেন।
গণসংযোগ ও পথসভা:
২২ জুলাই মেয়রপ্রার্থী সরওয়ার কামাল শহরের কোর্টবিল্ডিং এলাকা, নূরপাড়া, মালিপাড়া ও বড়–য়াপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় অব্যাহতভাবে গণসংযোগ ও পথসভায় যোগদান করেছেন। এসময় তিনি ভয়ভীতি উপেক্ষা করে ২৫ জুলাই নারিকেল গাছ মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য পৌরবাসীর প্রতি আহবান জানান।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top