নাজিরারটেক চ্যানেলে ট্রলারডুবি ৩ জেলে নিখোঁজ

34815581_2038121826438091_4760730755217227776_n-9.jpg

দিসিএম ডেস্ক।।

কক্সবাজার সমুদ্র উপকূলের নাজিরারটেক চ্যানেলে গতকাল রোববার বিকালে ঝড়ো হাওয়ার কবলে পড়ে একটি মাছ ধরার ট্রলার ডুবে গেছে। এসময় ৬ জন জেলেকে উদ্ধার করা হলেও তিন জেলে নিখোঁজ রয়েছে। রাত ৮টা পর্যন্ত তাদের খোঁজ মিলেনি।
নিখোঁজ জেলেরা হলেন, টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের খারিয়াখালী গ্রামের নুরুল আমিন, মো. সফিক ও মুছা আলী। মুছা আলী বাকপ্রতিবন্ধী। ডুবে যাওয়া ট্রলারের মালিক টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপের বাজারপাড়ার বাসিন্দা আলী আহমদ। ৯ জন জেলে নিয়ে ট্রলারটি সাগরে নামে।
ট্রলার মালিক আলী আহমদ বলেন, ঝড়ো হাওয়ার কবলে পড়ে মহেশখালীর সোনাদিয়া চ্যানেলের কাছে আরেকটি ট্রলার ইঞ্জিন বিকল হয়। ১২ জন জেলে নিয়ে ওই ট্রলারটি সাগরের উত্তাল ঢেউয়ে দুলছিল। ট্রলারটির মালিক শাহপরীরদ্বীপ মিস্ত্রিপাড়ার জাফর আলম। জাফর আলম মুঠোফোনে খবরটি আলী আহমদের ট্রলারের মাঝি (সেরাং) লোকমান হাকিমকে জানান।
এরপর লোকমান হাকিম ৯ জেলেসহ ট্রলারটি নিয়ে সাগরে ভাসমান ট্রলারটি উদ্ধারে নামেন। ট্রলারটি তখন কক্সবাজার শহরের বাঁকখালী নদীতে ছিল। ট্রলারটি বাঁকখালী নদী হয়ে মহেশখালী চ্যানেল অতিক্রম করে নাজিরারটেক উপকূলে পৌছলে ঝড়ো হাওয়ার কবলে পড়ে উল্টে যায়।
ডুবে যাওয়া ট্রলারের মাঝি লোকমান হাকিম বলেন, ঝড়ো হাওয়া ও বিশাল ঢেউয়ের ধাক্কায় তাঁর ট্রলারটি ডুবে গেলে তারা কয়েকজন তেলের খালী ড্রাম ও কাঠের বৈঠা নিয়ে ভাসতে থাকেন। এসময় অন্য একাটি ট্রলার ভাসমান অবস্থায় তিনিসহ ৬ জেলেকে উদ্ধার করলেও অপর তিন জেলে নিখোঁজ রয়েছে। রাত ৮টা পযন্ত নিখোঁজ জেলেদের সন্ধান মিলেনি। নিখোঁজ জেলেদের মধ্যে তাঁর এক ছোট ভাইও রয়েছে। তার নাম নুরুল হাকিম।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top