অসম্ভবকে সম্ভব করতে নির্বাচনী মাঠে মার্কিন হিজাবি নারী

198898_1.jpg

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ওয়াশিংটন: মার্কিন কংগ্রেসের প্রার্থী তাহিরা আমাতুল-ওয়াদুদ। স্প্রিংফিল্ডের বাসিন্দা। তিনি রিপাবলিকান প্রতিনিধি রিচার্ড নিলকে হারাতে জোর প্রচারণা চালাচ্ছেন।

মাথায় হিজাব এবং ‘আবায়া’ পরে তিনি নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে মানুষের দরজায় যাচ্ছেন।

তিনি একজন কৃষ্ণাঙ্গ মুসলিম নারী। এর আগে কখনো তিনি রাজনীতির সঙ্গে খুব একটা পরিচিত ছিলেন না। যাইহোক, তিনি এখন দীর্ঘ ১৫ বছরের রিপাবলিকান প্রতিনিধি রিচার্ড নিলকে হারাতে আশাবাদী।

স্প্রিংফিল্ডের বাসিন্দা এই নারী একজন আইনজীবী এবং সাত সন্তানের জননী। তবে, নির্বাচনী ময়দানে তিনি রিচার্ড নিল থেকে এখনো বেশ পিছিয়ে আছেন। কেননা তার আসনের ৮৬ শতাংশই শ্বেতাঙ্গ ও আগে কখনো আসনটিতে কোনো নারীকে নির্বাচিত করা হয়নি।

অর্থের দিক দিয়েও তিনি রিচার্ড থেকে পিছিয়ে আছেন। ফেডারেল নির্বাচন কমিশনের মতে, প্রথম ত্রৈমাসিকে শেষে আমামাতুল-ওয়াদুদের প্রচারাভিযানে মাত্র ২২,০০০ ডলার ব্যয় হয়েছে। অন্যদিকে, রিচার্ডের এই সংখ্যা ৩.২ মিলিয়ন ডলার।

যাইহোক, তীব্র রাজনৈতিক অস্থিরতার সময়ে আমতুল-ওয়াদুদের প্রচারাভিযানে সম্প্রতি গতি লাভ করেছে। নিউইয়র্ক সিটি কংগ্রেসম্যান আমতুল-ওয়াদুদকে নতুন আশা দিয়েছেন যে, ‘অসম্ভব সম্ভব হতে পারে’।

২৮ বছর বয়সী হিস্পানিক নারী আলেকজান্দ্রিয়া ওকাশিও-কর্তেজ ১০ বছর ধরে কংগ্রেসপদে থাকা জোসেফ ক্রাউলিকে পরাজিত করেছেন। জোসেফ ক্রাউলিকে বলা হয়, দলে ‘ রানিদের কিংমাস্টার’।

আমাতুল-ওয়াদুদ বলেন, ‘আলেকজান্দ্রিয়ার নির্বাচন আমার অন্তরকে জয় করেছে কারণ তার প্ল্যাটফর্ম আমার প্ল্যাটফর্মের অনুরুপ। এটি মানুষকে বলতে অনুপ্রাণিত করেছে যে, এটি সেখানে (নিউইয়র্ক) সম্ভব হলে, তা এখানেও ঘটতে পারে।’

 

ওকাসিও-কর্টেজের মতো আমতুল-ওয়াদুদও একটি প্রগতিশীল কর্মসূচী নিয়ে অগ্রসর হতে হচ্ছে। এসব হচ্ছে- সার্বজনীন একক-দাতা স্বাস্থ্যসেবা; একটি ন্যূনতম উচ্চ মজুরি; জেলায় উচ্চ গতির ইন্টারনেট সম্প্রসারণ; বর্ধিত অবকাঠামো ব্যয়; পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজে ঋণমুক্ত শিক্ষা এবং সাশ্রয়ী মূল্যের হাউজিংয়ের জন্য বৃহত্তর সমর্থন।

আমাতুল-ওয়াদুদ বলেন, ‘আমি এই বিষয়গুলো ফোকাস করার জন্য আগ্রহী এবং সবার দরজায় যেতে চাই এবং অন্যান্য আইন প্রণেতাদের সঙ্গে সংযুক্ত হতে চাই। আমি আর অপেক্ষা করতে পারছি না।’

৪৪ বছর বয়সী আমতুল-ওয়াদুদ একজন মানবাধিকার আইনজীবী। তিনি অভ্যন্তরীণ সম্পর্ক এবং নাগরিক অধিকারগুলির ওপর জোর দিয়ে থাকেন। তিনি তার প্রাথমিক জীবন নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে অতিবাহিত করেন। পরে স্প্রিংফিল্ডে চলে আসেন এবং ওয়েস্টার্ন নিউ ইংল্যান্ড স্কুল অফ ল’ থেকে আইন বিষয়ে ডিগ্রি লাভ করেন।

আমাতুল-ওয়াদুদ রাষ্ট্রীয় কমিশনের নারীর অবস্থা সম্পর্কিত কমিশনের স্থলাভিষিক্ত হন এবং ম্যাসাচুসেটস ও নিউইয়র্কের ধর্মীয় সভার আইনি পরামর্শ হিসেবে কাজ করেন।

সূত্র: বোস্টন গ্লোব ডটকম

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top