মুজিবকে বিজয়ী করতে একাট্টা আওয়ামী লীগ

Nozib-News-Pic-800x450.jpg

দিসিএম

কক্সবাজার পৌরসভা নির্বাচনে ‘নৌকা’ প্রতীকের প্রার্থী মুজিবুর রহমানকে বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সকল দ্বন্দ্ব, বিভেদ ভুলে গিয়ে তারা প্রতিদিনই নানা স্থানে দলভিত্তিক গণসংযোগ ও প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন। সহানুভুতি আদায়ের জন্য বারে বারে ধর্ণা দিচ্ছেন ভোটারদের কাছে।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হওয়ায় এবার আওয়ামী লীগের নৌকা’র পালে নতুন করে হাওয়া লেগেছে। বিগত নির্বাচনে যারা নিজ দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে গোপনে ও প্রকাশ্যে অবস্থান নিয়েছিলেন তারাও পক্ষে কাজ করায় নতুন মাত্রা পেয়েছে নির্বাচন। এবার নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিজয়কে ‘অবধারিত’ ভাবছেন নেতাকর্মীদের বড় একটি অংশ।
খোঁজ-খবর নিয়ে জানা গেছে, সম্প্রতি আওয়ামী লীগের প্রার্থী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমানের পক্ষে প্রকাশ্যে মাঠে নেমেছেন পৌরসভার চার বারের নির্বাচিত সাবেক মেয়র নুরুল আবছার। বিগত নির্বাচনে মুজিবের বিপক্ষে দলের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা রাশেদুল ইসলামও এবার তার পক্ষে কাজ করছেন। রাশেদ নিজেই মুজিবের হয়ে লিফলেট-প্রচারপত্র বিলি করেছেন ভোটারদের কাছে। এছাড়াও দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগ, ছাত্রলীগ ও মহিলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। জেলা যুবলীগের সভাপতি সোহেল আহমদ বাহাদুর, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল হক সোহেল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক কায়সারুল হক জুয়েল, জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শফিউল্লাহ আনসারি, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইশতিয়াক আহমদ জয়, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোর্শেদ হোসাইন তানিম প্রায় প্রতিদিনই ভোটারদের দ্বারে-দ্বারে ঘুরছেন। নিজেদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও তারা প্রচারণা চালাচ্ছেন। নেতারা ঐক্যবদ্ধ হওয়ার কারণে প্রতিদিন দলভিত্তিক গণসংযোগ ও প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন তৃণমূলের কর্মীরা।
আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের অন্তর্ভুক্ত জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলও (জাসদ) নানা স্থানে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে প্রচারনা চালাচ্ছে। একইভাবে গণসংযোগ করছে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্র জানায়, কক্সবাজার পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন পাঁচজন প্রার্থী। মুজিবুর রহমান ছাড়া প্রতিদ্বন্দ্বি অন্য প্রার্থীরা হলেন, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী, জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র প্রার্থী, জামায়াত নেতা সরওয়ার কামাল (নারিকেল গাছ), জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী মো: রুহুল আমিন (লাঙ্গল) ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর প্রার্থী জাহেদুর রহমান (হাত পাখা)।
আওয়ামী লীগ সমর্থিত ভোটারদের একটি অংশ বলছেন, মেয়র প্রার্থী পাঁচজন হলেও মূলত লড়াই হবে মুজিবুর রহমান, রফিকুল ইসলাম ও সরওয়ার কামালের মধ্যে। ভোটের হিসেব-নিকাশে এই তিন জনের মধ্যে সার্বিক বিবেচনায় এগিয়ে রয়েছেন মুজিবুর রহমান। কারণ নিজ দলের কোন বিদ্রোহী প্রার্থী না থাকায় এবার আওয়ামী লীগের ভোট ভাগাভাগি হওয়ার কোন শংকা নেই।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা বলেন, ‘আমাদের প্রার্থী মুজিবুর রহমানকে বিজয়ী করতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করছে। অতীতে পৌরসভার নির্বাচনে কখনো এ ধরনের একতা আওয়ামী লীগে আসেনি। এই ঐক্যের কারণে অন্য কোন প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী বিজয়ী হতে পারবে না। এটা সমস্ত ভোটার এবং কক্সবাজার পৌরবাসীর বিশ্বাস।’
তিনি বলেন, ‘মানুষ উন্নয়ন চায়। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারাদেশে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। এ উন্নয়নের ধারবাহিকতা ধরে রাখতেই মানুষ নৌকার প্রার্থীকে ভোট দেবে। শেখ হাসিনার প্রার্থী বিজয়ী হলে মানুষের অভাব-অভিযোগ পূরণ হবে।’

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top