প্রতিটি বিদ্যালয়ে সাঁতার শেখানোর ব্যবস্থা করা হবে : ডিসি কামাল হোসেন

IMG_20180717_152546.jpg

এম.মনছুর আলম, চকরিয়া:

চকরিয়ায় মাতামুহুরী নদীতে জেগে উঠা বালুর চরে ফুটবল খেলে নদীতে গোসল করতে নেমে চোরাবালিতে পড়ে নিহত হয়েছে চকরিয়া গ্রামার স্কুলের ৫ মেধাবী ছাত্র। নিহত হওয়া ছাত্রদের শোকাহত পরিবার ও স্বজনদের সমবেদনা জানাতে ছুটে আসেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো: কামাল হোসেন।তিনি এসে প্রথমেই নিহত হওয়া একই পরিবারের দুই মেধাবী ছাত্র এমশাদ ও মেহেরাবের বাড়িতে চলে যান। ১৭জুলাই (সোমবার) রাত ৯টার দিকে চকরিয়া পৌরশহরে ৮নম্বর ওয়ার্ডের ষ্টেশন পাড়া এলাকার নিহত এমশাদ ও মেহেরাবের পিতা আলহাজ্ব আনোয়ার হোছাইনের পরিবারকে সমবেদনা জানায়। জেলা প্রশাসকের সাথে এ সময় উপস্থিত ছিলেন, চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খোন্দকার মো: ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাত, চকরিয়া পৌরসভার ৮নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মুজিবুল হক মুজিব, পৌরসভা ২নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রেজাউল করিমসহ বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ। জেলা প্রশাসক মো: কামাল হোসেন এ সময় মাতামুহুরী নদীতে নিহত হওয়া এমশাদ ও মেহেরাবের পিতা আলহাজ্ব আনোয়ার হোছাইন ও তার সহধর্মীনিসহ পরিবারের স্বজনদের সান্তনা দিয়ে সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এ ছাড়াও নিহত হওয়া অপর ছাত্রদের পরিবার সদস্যদেরও খোঁজ খবর নেন। তিনি এ সময় বলেন, উপজেলার প্রত্যেকটি বিদ্যালয়ে ছাত্রদেরকে সাঁতার শেখানোর ব্যবস্থা করা হবে।এছাড়াও চকরিয়া সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠটি ছাত্রদের খেলাধুলা জন্য সংস্কার করার ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নির্দেশ দেন।নিহত ছাত্রদের স্মরণে স্মৃতিস্তম্ভ করার বিষয়টি বিবেচনা করা হবে বলে তিনি জানান।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top