উখিয়ায় গ্রামবাসি-রোহিঙ্গা সংঘর্ষ

images-9.jpeg

প্রতিকি ছবি

শফিক আজাদ,উখিয়া ::
তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উখিয়ার বালুখালীতে গ্রামবাসির সাথে রোহিঙ্গারা সংঘর্ষে লিপ্ত হয়ে ২ গ্রামবাসিরকে রক্তাক্ত করেছে। স্থানীয় লোকজন আহত ২ গ্রামবাসিকে উদ্ধার করে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। ঘটনার পর থেকে বালুখালী পানবাজার এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। সোমবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে এ সংঘর্ষে ঘটনাটি ঘটেছে।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ২০১৬সাল এবং গত বছরের ২৫ আগষ্টের পর বালুখালী পানবাজার সংলগ্ন এলাকায় বিশাল বনভূমির জায়গা দখল করে অন্তত আড়াই লাখের অধিক রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছে। এসব রোহিঙ্গাদের মধ্যে বেশ কিছু উশৃংখল রোহিঙ্গা রয়েছে। যারা কথায় কথায় ঘটনা করতে দ্বিধা করেনা। যার ধারাবাহিকতায় সোমবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে স্থানীয় বালুখালী এলাকার মৃত নুর আহমদের ছেলে আবছার উদ্দিন (১৯) ক্যাম্পের পাশ দিয়ে হেটে যাওয়ার সময় কিছু উশৃংখল রোহিঙ্গা যুবক তাকে কটুক্তি শব্দ উচ্চারণ করিলে সে প্রতিবাদ করে। সাথে সাথে রোহিঙ্গারা তাকে বেধড়ক মারধর করে ক্যাম্পে ভিতরে নিয়ে যায়।

খবর পেয়ে তার বড় ভাই ছৈয়দ নুর ক্যাম্পে ভিতরে গেলে তাকেও মারধর করে পরে পুলিশ, আনসার সদস্য ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাদেরকে উদ্ধার করে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রোহিঙ্গারা গ্রামবাসির উপর হামলা করেছে। এতে আবছার নামের একজন গ্রামবাসি আহত হয়েছে। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে দাবী করেন। এছাড়াও উভয়পক্ষকে নিয়ে ঘটনা মিমাংশার চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। তিনি আরো জানান, একটি ডাম্পার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ঢুকিয়ে নেয়ার কারনে সহিংস ঘটনার সৃষ্টি হয়। রোহিঙ্গাদের হামলায় আহত নুরুল আবছারকে উদ্ধার করে কুতুপালং ক্যাম্পের তুর্কি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top