কক্সবাজারে তিব্র হচ্ছে বিএনপি-জামায়াতে ফাটল

36371720_2187550471477698_7725855019643174912_n-5.jpg

মুুহিববুল্লাহ মুহিব :
আসন্ন কক্সবাজার পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী নিয়ে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটে ফাটল দেখা দিয়েছে। এবারের নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপি ও জামায়াত ইসলামী পৃথক প্রার্থী দিয়েছে। বিএনপিকে বৃদ্ধাংগুলি দেখিয়ে আলাদা প্রার্থী দাঁড় করিয়েছে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম দল জামায়াত ইসলামী। এনিয়ে দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক মধুর সম্পর্কে ফাটল ধরেছে দুই দলের মধ্যে।
জানাযায়, কক্সবাজার জেলা বিএনপি মেয়র পদে প্রার্থী দিয়েছে কক্সবাজার জেলা শ্রমিক দলের সভাপতি ও পৌর কাউন্সিলর রফিকুল ইসলামকে। অন্যদিকে আগের মতো বিএনপির সাথে সমঝোতা না হওয়ায় তাদের বৃদ্ধাংগুলি দেখিয়ে মেয়র পদে জামায়াত ইসলামী প্রার্থী ঘোষণা করেছে গেলবার নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াত জোটের নির্বাচিত মেয়র সরওয়ার কামালকে। ইতোমধ্যে নিজ নিজ দলের সমর্থন নিয়ে ২০ দলীয় জোট সমর্থিত প্রধান দু’দলের দু’মেয়র প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়ে বাছাই পর্ব পার করেছে।
ফলে আসন্ন কক্সবাজার পৌরসভা নির্বাচনে সরকার সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সরাসরি ভোট যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছেন দেশীয় রাজনীতির মাঠে একই জোটের দু’প্রার্থী রফিক ও সরওয়ার। অন্যদিকে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী জোটের শরীক জাতীয়পার্টির (এরশাদ) প্রার্থী, জেলা জাপার সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন সিকদার নির্বাচন করছেন। এছাড়া মেয়র পদে ভোট যুদ্ধে নামা ৫ মেয়র প্রার্থীর অপর জন হলেন, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের মৌলানা মো. জাহেদুর রহমান।
এদিকে কক্সবাজারের সচেতন রাজনৈতিক নেতারা মনে করেন, কক্সবাজার পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি-জামায়াতের দু’ মেরুতে অবস্থান আগামী জাতীয় নির্বাচনে কক্সবাজারের চারটি আসনেও এর ব্যাপক প্রভাব পড়বে। এসব কারনে কক্সবাজার কেন্দ্রীক বর্তমান সরকারের দৃশ্যমান উন্নয়নের বদলে আগামী নির্বাচনে একটি ইতিবাচক ফলাফলেরও আশা করছেন ক্ষমতাসীনরা।
শহর জামায়াতের শীর্ষ এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, জেলা বিএনপির নেতাদের সাথে আলোচনা করে মেয়র পদে জোটবদ্ধ প্রার্থী দেয়ার চেষ্টার কমতি ছিলো না। কিন্তু ২০ দলীয় জোটের নেতৃত্বদানকারী কক্সবাজার বিএনপি নিজে আগে থেকে প্রার্থী ঠিক করে রাখায় আলোচনা সফল হয়নি।ফলে সরকারের মিথ্যা মামলায় নির্যাতিত, নির্বাচিত জনপ্রিয় মেয়র সরওয়ার কামালকে জামায়াত সমর্থন দিয়েছে।
এদিকে জেলা বিএনপির শীর্ষ এক নেতা জানান, বিএনপি এবং জামায়াত দু’ দলেরই কক্সবাজারের শক্তিশালী রাজনৈতিক অবস্থান রয়েছে। নির্বাচন সুষ্ঠু হলে পৃথক নির্বাচন করেও আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীকে হারানো সম্ভব বলে তিনি মনে করেন।
যখন প্রার্থী নিয়ে বিএনপি-জামায়াতের নেতারা ব্যস্ত ঠিক তখনই নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মুজিবুর রহমান প্রত্যহ সকাল থেকে গভীর রাত অবধি কক্সবাজার পৌরসভার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ভোটারদের ধারে ধারে নৌকা প্রতীকের পক্ষে ভোট প্রার্থনা করছেন। নির্বাচিত হলে তিনি হেলদি শহর কক্সবাজারকে বিশ্বমানের মডেল টাউনে রূপদানের কথা ভোটারদের অকপটে বলছেন। মেয়র প্রার্থী মুজিবুর রহমানের বিশ্বাস কক্সবাজার পৌরসভার মানুষ এবার তাকে নিরাশ করবেন না। বঙ্গবন্ধু-শেখ হাসিনার নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে কক্সবাজারের ভোটাররা বাক্স ভর্তি করবেন।
উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৩ জুলাই ও ভোট গ্রহণ ২৫ জুলাই। কক্সবাজার পৌরসভার ১২ টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ৮৩ হাজার ৭২৮ জন। তার মধ্যে পুরুষ ভোটার রয়েছেন ৪৪ হাজার ৩৭৩ জন ও মহিলা ভোটার রয়েছেন ৩৯ হাজার ৩৫৫ জন।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top