গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই নকআউট পর্বে ব্রাজিল

photo-1530129772.jpeg

সর্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে ড্র করলেই নকআউট পর্বে খেলা নিশ্চিত হয়ে যেতো ব্রাজিলের। এই সমীকরণ নিয়ে মাঠে নেমে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা মোটেও রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলেনি। শুরু থেকেই বেশ আক্রমণাত্মক মেজাজে খেলে, এর ফলও পায় নেইমারের দল। ইউরোপের দলটির বিপক্ষে ম্যাচে ২-০ গোলে জিতে নকআউট পর্বে ওঠে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।মস্কোতে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচ জিতে ‘ই’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই পরের পর্বে খেলা নিশ্চিত ব্রাজিল। তিন ম্যাচের দুটিতে জিতেছে এবং একটিতে ড্র করেছে তারা। আর সুইজারল্যান্ড ৫ পয়েন্ট পেয়ে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে শেষ ষোলোতে নিশ্চিত করে।

ম্যাচে ব্রাজিলকে গোলের দেখা পেতে অবশ্য বেশ কিছুক্ষণ সময় লেগেছে। ৩৬ মিনিটে সাফল্য পায় তারা, মিডফিল্ডার পাওলিনহো লক্ষ্যভেদ করেন (১-০)। মাঝমাঠ থেকে একটি বল পেয়ে বক্সে ঢুকেই গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে বল জালে জড়ান।ব্যবধান দ্বিগুণ করতেও কিছুক্ষণ সময় লেগেছে ব্রাজিলের। ৬৮ মিনিটে নেইমারের কর্নার থেকে ডিফেন্ডার থিয়াগো সিলভা চমৎকার হেডে গোল করে দলকে দ্বিতীয় সাফল্য এনে দেন (২-০)।অবশ্য এর আগে ১৫ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো ব্রাজিল, গ্যাব্রিয়েল জেসুসের বাড়িয়ে দেওয়া বল ধরে নেইমার বক্সে ঢুকেই শট, গোরক্ষকের দৃঢ়তায় রক্ষা পায় সার্বিয়া। আর দারুণ সুযোগ হাতছাড়া করে ব্রাজিল।৩০ মিনিটে জেসুস অফসাইডের ফাকগলে বেরিয়ে বক্সে ঢুকেই শট, ব্যর্থ প্রচেষ্টা। গোলরক্ষকে সামনে পেয়েও গোল করতে পারেননি তিনি।ম্যাচের ৬০ মিনিটে একটি গোল করার দারুণ সুযোগ হাতছাড়া করে সার্বিয়া। বক্সের মধ্যে আলেক্সান্ডার মিট্রোভিচ বল পেয়েই দারুণ হেড, ব্রাজিল ডিফেন্ডার থিয়াগো সিলভার দৃঢ়তায় রক্ষা পায় ব্রাজিল।অবশ্য ৮৫ মিনিটে নেইমার ম্যাচে সবচেয়ে সহজ সুযোগ নষ্ট করেন। গোলরক্ষকের সামনে বল পেয়েও গোল করতে পারেননি। তাই দুই গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে তারা।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top