কর্ণফুলীতে সড়ক সংস্কারে অনিয়ম,ক্ষুব্ধ জনতা ডিজিটাল বাংলাদেশে দূর্নীতিবাজ ঠিকাদার

aaa.jpeg

জে.জাহেদ বিশেষ প্রতিবদেক:

কর্ণফুলীতে জুলধা ইউনিয়নের ফকিরনীরহাট রাস্তার মাথা থেকে উজিরপুর পর্যন্ত
৪শ মিটার রাস্তা সংস্কারে ব্যাপক অনিয়মও দূর্নীতি চলছে বলে অভিযোগ জুলধাবাসীর।

জানা যায়, পুরাতন এই রাস্তাটি নতুন করে সংস্কার নির্মাণের জন্য পটিয়া স্থানীয় সরকার (এলজিআরডি) কতৃক ৪৯ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৪শ মিটার রাস্তা সংস্কারের কাজ পান ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান চৌধুরী এসোসিয়েটস্।

যথাযথ নির্মান কাজ শুরু হলেও অজ্ঞাত কারনে কাজের গতি ছিল অতি মন্তর। একদিন কাজ করা হলে ৩দিন বন্ধ রাখা হয়। এতে জনদুর্ভোগ অতি চরমে উঠেছে। মাঝে মধ্যে প্রায় দুর্ঘটনা ঘটে ছোট বড়। বিশেষ করে বাইক আরোহীরা এর শিকার হচ্ছে।

দেখা যায়, প্রথমে মেডেলি, করে রাখা হয় দুমাস। তারপর থেকে বিটুমিনের সাথে ছোট পাথর মিশিয়ে মেটেলিং করা হয়েছে। কয়েক দিনের মাথায় অধিকাংশ রাস্তার সমস্ত পাথর ও কার্ফেটিং উঠে মরণফাঁদে পরিণত হয়ে আছে।

ওদিকে কাজ সম্পূর্ণ না হতেই চলছে হরিলুট। কয়েকদিন আগে এলাকাবাসী ও মহিলারা জড়ো হয়ে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান। তাদের দাবি পুনরায় রাস্তার উপর থাকা বিটুমিন সরিয়ে নতুন করে নির্মাণ কাজ না করা হলে কাজ করতে দেওয়া হবেনা।

অথচ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান চৌধুরী এসোসিয়েটস কোন নিয়মনীতি তোয়াক্কা না করে সংশ্লিষ্ট অফিসের সাথে অবৈধ যোগসুত্র রেখে নি¤œমানের কাজ করছে বলে জনতা অভিযোগ তুলেছে।

গত ২৭মে কর্ণফুলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও স্থানীয়রা এ সংস্কার কাজের অনিয়ম দেখে কাজ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু তড়িঘড়ি করে পরের দিন আবারো সকালে কাজ শুরু করে ঠিকাদার। যা দেখে এলাকাবাসী এখন ব্যাপক ক্ষুব্ধ হয়ে রয়েছেন।

এদিকে বিশাল অঙ্কের এই নির্মাণ কাজের দায়িত্বে থাকা ঠিকাদারের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে
সংশ্লিষ্ট দপ্তরের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয় যুবক নুরুল হক।

তিনি আরো জানান, বর্তমান সরকারের বিশাল এই অর্থ এভাবেই নি¤œমানের কাজ করে রাঘব বোয়ালদের পেটে যেতে পারেনা।

এই বিষয়ে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান চৌধুরী এসোসিয়েটস্ সঙ্গে ফোনে কয়েক যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও ফোন রিসিভি করেন নি।

কর্ণফুলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফারুক চৌধুরী জানান, আমাদের এলাকায় আগে যা কাজ হয়েছে। তা কখনো নজরদারী ছিলনা। ঠিকাদারের ধারনা ছিল যেনতেন ভাবে পুর্বের মতো কাজ করে চলে যেতে পারবে কিন্তু কর্ণফুলীতে সে সুযোগ আর নেই।

বর্তমান সরকারের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে,সঠিক কাজ করতে হবে বলে সর্তক করেন তিনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top