ভারতে কপার কারখানা বিরোধী বিক্ষোভে পুলিশের গুলি, নিহত ৯

4cc37323e5ec50a02cbd5c5da0e6734a-5b046a2b286b1.jpg

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের পরিবেশ আদালতের রায়ে ২০১৩ একবার দুই মাসেরও বেশি সময় বন্ধ ছিল বেদান্ত রিসোর্চ কোম্পানির মালিকানাধীন কারখানাটি। পরে সচল হলেও পরিবেশবাদী ও স্থানীয় রাজনীতিবিদদের একাংশ  কারখানাটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়ার দাবি তুলেছে। বার্ষিক চার লাখ টন কপার উৎপাদনে সক্ষম কারখানাটি বিক্ষোভের কারণে ৫০ দিনেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ রয়েছে। স্থানীয় দূষণ নিয়ন্ত্রক দফতর পরিবেশ নীতিমালা না মানায় আগামী ছয় জুন পর্যন্ত কারখানাটি বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি কারখানাটির কারণে স্বাস্থ্য ঝুঁকির পাশাপাশি মৎস সম্পদও ঝুঁকির মুখে পড়েছে।

মঙ্গলবার জেলা প্রশাসনের সদর দফতর ও বেদান্ত রিসোর্চের কর্মচারীদের এপার্টমেন্ট ভবনের বাইরে কালো পতাকা প্রদর্শনের সময় বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি বর্ষণ করে পুলিশ। রাজ্যের পুলিশ কর্মকর্তা কপিল কুমার সরকার রয়টার্সকে বলেছেন, বিক্ষোভকারীরা যানবাহনে অগ্নিসংযোগ ও পুলিশের ওপর পাথর নিক্ষেপ করলে গুলি ছুঁড়তে বাধ্য হয় পুলিশ।

বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি চালানোর ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে ভারতের বিরোধী দল কংগ্রেসের প্রধান রাহুল গান্ধী। টুইটারে তিনি লিখেছেন, তামিল নাড়ুতে পুলিশের গুলিতে নয় জন নিহত হওয়ার ঘটনা রাষ্ট্রীয় মদদে চলা সন্ত্রাসেরর নৃশংসতম উদাহরণ। অন্যায়ের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করায় এসব নাগরিকদের হত্যা করা হয়েছে। এই ঘটনায় নিহত আর আহতদের পরিবারের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা।

স্থানীয় টেলিভিশনের খবরে দেখানো হয়েছে বিক্ষোভকারীদের ওপর টিয়ার গ্যাস ও পানি ছিটিয়ে ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করছে পুলিশ। রাজ্যের মন্ত্রী ডি জয় কুমার টেলিভিশনে প্রচারিত বক্তব্যে বলেছেন,  মঙ্গলবার বিক্ষোভকারীদের ওপর পুলিশ যে গুলি চালিয়েছে তা এড়ানোর কোনও উপায় ছিল না।

তামিল নাড়ুর প্রধান বিরোধী দল দ্রাবিড় প্রগ্রেস পার্টির নেতা এম কে স্টালিন এক ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, সরকারের নিষ্ক্রিয়তার কারণে মানুষ বিক্ষোভ নেমেছে, আর পুলিশ তা নিয়ন্ত্রণে গুলি ছুঁড়েছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে এই কারখানা বন্ধের পদেক্ষেপ নেওয়া উচিত।

তবে বেদান্ত রিসোর্চ বলছে ভুয়া অভিযোগের ভিত্তিতে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হচ্ছে আর সেই কারণে তারা  উৎপাদন দ্বিগুণ করার পরিকল্পনা করছেন। প্রতিবছর আট লাখ টন কপার উৎপাদনের চেষ্টা চালাচ্ছেন তারা। বেদান্ত রিসোর্চের প্রধান নির্বাহী পি রামনাথ রয়টার্সকে বলেছেন, আমরা শান্তিপূর্ণ প্রক্রিয়ায় যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কারখানাটি আবার সচল করতে চাই।

 

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top