কক্সবাজার মাংস বিক্রিতে নৈরাজ্য চালাচ্ছে ব্যবসায়ীরা

31919333_2017385248511493_8513144201699917824_n-7.jpg

নিউজ ডেস্ক।।

মাংস বিক্রিতে কক্সবাজার শহরের বাজারগুলোতে চলছে চরম নৈরাজ্য। একেক বাজারে একেক দাম হাকিয়ে ঠকানো হচ্ছে ক্রেতাদের।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শহরের বড়বাজার, কানিয়াবাজার, বাহারছড়া বাজার, কালুর দোকান বাজার, পিটিস্কুল বাজার ও কলাতলীবাজারে একেক দামে গরু, ছাগল ও মহিষের মাংস বিক্রি হয়ে আসছে। ব্যবসায়ীরা নিজেদের ইচ্ছেমত দাম ঠিক করে হাতিয়ে নিচ্ছে ক্রেতাদের কাছ থেকে। মাঝেমধ্যে কোন কোন বাজারে গরু মাংস বিক্রি হয় ৭’শ থেকে ৮’শ টাকা পর্যন্ত। এনিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
দীর্ঘদিন এভাবে চলে আসলেও অবশেষে পৌরসভা ও প্রশাসন মাংসের ‘নির্দিষ্ট’ দর নির্ধারণ করেছে। কিন্তু সেই দর মানতে নারাজ ব্যবসায়ীরা। প্রয়োজনে বাজার বন্ধ করে ধর্মঘটে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিচ্ছে তারা।
জানা গেছে, জেলা প্রশাসনের সাথে আলাপ করে গতকাল সোমবার বিকেলে শহরের বাজার গুলোর প্রতিনিধিদের ডেকে মাংসের দর ঠিক করে দেন কক্সবাজার পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র মাহবুুবুর রহমান। পৌরসভার নির্ধারিত দর অনুযায়ী শহরের বাজার গুলোতে গরু মাংস বিক্রি হবে কেজি প্রতি ৪৫০ টাকা, মহিষ ৪৫০ টাকায় এবং ছাগল ৬৫০ টাকায়। আজ (মঙ্গলবার) সকালেও বড়বাজারে গরু মাংস বিক্রি হয়েছে ৫০০ থেকে ৬০০ টাকায়।
এদিকে প্রশাসন ও পৌরসভার পক্ষ থেকে ঠিক করা মাংসের দর মানতে নারাজ ব্যবসায়ীরা। তাদের দাবী, সবদিক বিবেচনা না করেই মাংসের দর ঠিক করা হয়েছে। এতে ব্যবসায়ীদের চরম লোকসান হবে।
বড়বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, গরু, ছাগল ও মহিষের এখন দাম চড়া। এই অবস্থায় গরু মাংস কেজি প্রতি ৪৫০ টাকায় বিক্রি করলে, তাদের ব্যবসা লাটে উঠবে।
ব্যবসায়ীদের দাবীর প্রতি ধিক্কার জানিয়েছেন ক্রেতারা। আজিজ রাসেল নামে এক ক্রেতা বলেন, অতি মুনাফা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য ব্যবসায়ীরা চক্রান্ত করছে। এই চক্রান্ত কঠোরভাবে দমন করতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।
পৌরসভার এক কর্মকর্তা জানান, পৌরসভার ঠিক করা দর মানছে মাংস ব্যবসায়ীরা। ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসকের সাথে যোগাযোগ করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top