শিগগিরই ক্ষমা পাবেন কারাবন্দি আনোয়ার ইব্রাহিম

195338_1-4.jpg

আন্তর্জাতিক ডেস্ক   

কুয়ালালামপুর: দুর্নীতি ও সমকামীতার অভিযোগে কারাবন্দি আনোয়ার ইব্রাহিমকে শিগগিরই মুক্ত করা হতে পারে এবং এক সপ্তাহের মধ্যেই তাকে সম্পূর্ণ রাষ্ট্রীয় ক্ষমা করবেন মালয়েশিয়ার রাজা।

শুক্রবার (১১ মে) মালয়েশিয়ার রাজা পঞ্চম সুলতান মোহাম্মদের সঙ্গে সাক্ষাতের পর সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য জানালেন আনোয়ার ইব্রাহিমের স্ত্রী।

আনোয়ার ইব্রাহিমের স্ত্রী ওয়ান আযিযা বলেন, যত দ্রুত সম্ভব ক্ষমা মঞ্জুর করতে ইচ্ছুক রাজা। যদি কারাগারের পরিচালক সন্তুষ্ট থাকেন, তবে তাকে (আনোয়ার ইব্রাহিম) দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে মুক্তি দেওয়া হবে।

গত বৃহস্পতিবার (১০ মে) প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করা মাহাথির জানিয়েছেন, আনোয়ার ক্ষমা পেয়ে রাজনীতিতে যোগ দানের পর মাহাথির নিজে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়াবেন। অথচ, দুর্নীতি ও অশালীন আচরণের অভিযোগে আনোয়ারকে উপপ্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছিলেন এই মাহাথিরই।

শুক্রবার একটি সংবাদ সম্মেলনে আনোয়ারের কারামুক্তির ইঙ্গিত দেন নতুন প্রধানমন্ত্রী মাহাথির বলেন, আনোয়ারকে সম্পূর্ণ ক্ষমা করা হবে। ক্ষমা মঞ্জুরের সঙ্গে সঙ্গে তাকে কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়া হবে। এরপর তিনি সম্পূর্ণভাবে রাজনীতিতে অংশ নিতে পারবেন।

তিনি আরও বলেন, আনোয়ারের জন্য মন্ত্রীসভার সদস্য হওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে দীর্ঘ সময় লেগে যেতে পারে।

সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া একটি বিবৃতিতে পরিবর্তনের প্রতি আস্থা রাখার জন্য মালয়েশিয়ার জনগণকে ধন্যবাদ জানান আনোয়ার। পাশাপাশি নতুন সরকারকে গণতন্ত্র, ন্যায়বিচার ও মানবাধিকারের পক্ষে থাকবে বলে জানান তিনি।

বুধবার (০৯ মে) মালয়েশিয়ার ১৪তম সাধারণ নির্বাচনে মাহাথির মোহাম্মদ ক্ষমতাসীন জোট বারিসান ন্যাশনালকে (বিএন) বিপুল ব্যবধানে পরাজিত করেন। এক সময় এই জোটের হয়ে তিনি ২২ বছর কঠোর হাতে মালয়েশিয়া শাসন করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১০ মে) শপথ নেওয়ার পর বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সী প্রধানমন্ত্রীর খেতাব লাভ করেন মাহাথির।

প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ গ্রহণের মধ্য দিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক নির্বাচিত নেতা হিসেবে ইতিহাস গড়লেন মাহাথির মোহাম্মদ। এর আগে টানা প্রায় ২২ বছর মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। ২০০৩ সালে তিনি ক্ষমতা থেকে সরে যান।

বুধবার অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের রাজনৈতিক জোট বারিসান ন্যাশনালকে (বিএন) হারিয়ে মাহাথিরের নেতৃত্বাধীন জোট সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভের পর দেশটিতে শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তর নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছিল। তবে সব আশঙ্কার অবসান ঘটিয়ে শেষ পর্যন্ত শপথ নিলেন মাহাথির।

মাহাথির মোহাম্মদের শপথ নেওয়ার খবরে কুয়ালালামপুরে প্রাসাদের বাইরে উল্লাসে মেতে ওঠেন তার কর্মী-সমর্থকেরা। অনেকেই পতাকা উড়িয়ে ও গান গেয়ে মুহূর্তটি উদ্‌যাপন করেন। বিজয়ের পর মালয়েশিয়ায় দুই দিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। তবে মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, নির্বাচনে বিজয়ীদের কোনো ছুটি থাকবে না।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top