রোহিঙ্গাদের সহায়তায় জাপানের ১৫.৭ মিলিয়ন ডলার অনুদান

16710505_303.jpg

রোহিঙ্গা শিশু, নারী এবং ঝুঁকিপূর্ণ স্থানীয়দের মানবিক সহায়তায় ১৫.৭ মিলিয়ন ডলার সহায়তা দিয়েছে জাপান। ইউনিসেফের মাধ্যমে এ সহায়তা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার ইউনিসেফের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রোহিঙ্গা শিশু ও নারী এবং ব্যাপক অনুপ্রবেশের কারণে ঝুঁকির মুখে পড়া স্থানীয়দের জরুরি সহায়তার প্রয়োজনের বিষয় অনুধাবন করে এই সহায়তার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাপান।

এই অনুদান রোহিঙ্গা শিশু ও নারীদের জন্য সুরক্ষা, স্বাস্থ্যসেবা, নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন সহায়তায় ইউনিসেফ ও অন্যান্য সংস্থাগুলোর কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখতে সহায়ক হবে।

এর মাধ্যমে রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় অধিকসংখ্যক স্থানীয়দের সম্পৃক্ত করা এবং তাদের সামর্থ্য বৃদ্ধির সুযোগ সৃষ্টি হবে।

সংকটের প্রথম ৬ মাসে অতিপ্রয়োজনীয় সহায়তার প্রশংসা করে ইউনিসেফ বাংলাদেশ প্রতিনিধি এডুয়ার্ড বেইগবেডার বলেন, এই অনুদানের জন্য তার সংস্থা জাপান সরকার ও জনগণের কাছে কৃতজ্ঞ।

ইউনিসেফ ও এর অঙ্গসংস্থাগুলো ১৫ হাজার শিশুকে অপুষ্টি, ১ লাখ ৪২ হাজার ৩শ’র অধিক শিশুকে মানসিক সহায়তা, ৩ লাখ ৫৪ হাজার ৯৮২ শিশুকে হামের টিকা, ৪ লাখ ৩১ হাজার ৪৪৮ শিশুকে ডিপথেরিয়া এবং ৭ লাখ ৪৮৭ জন বয়স্ক মানুষকে কলেরার চিকিৎসা দিয়েছে। ইউনিসেফের স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রমে ৫ বছরের নিচে ৫৩ হাজারেরও বেশি শিশুকে স্বাস্থ্য সেবা দেয়া হয়েছে।

স্থানীয় সংস্থা, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এবং ইউনিসেফ বর্তমানে সুপেয় পানির ব্যবস্থা করছে। ইউনিসেফ ২০১৮ সালে রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় ১৪৪.৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের আবেদন জানিয়েছে। এরমধ্যে ৩০ শতাংশ পাওয়া গেছে এবং এজন্য আরও ১০০.৮ মিলিয়ন ডলার প্রয়োজন।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top