মহাসাগরে ভারতের জাহাজ বিকল, উদ্ধার করল পাকিস্তান!

31164131_2105657099665043_8255367863963541884_n-5.jpg

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

লাহোর: ভারত মহাসাগরে সেদেশের একটি জাহাজ বিকল হয়ে নাবিকদের মৃত প্রায় অবস্থার সৃষ্টি হয়েছিল। সব নাবিক মৃত্যুর প্রহর গুনছিল। একাধিকবার ভারতীয় অন্যান্য জাহাজের সাহায্য চাওয়া হলেও নাবিকরা সংকেত পাঠাতে ব্যর্থ হয়। বেঁচে ফেরার আসা যখন ভারতীয় নাবিকরা ছেড়ে দিয়েছিল। ঠিক তখন সমুদ্রের সীমারেখা অতিক্রমের ভয় না পেয়ে, আন্তর্জাতিক সমুদ্র আইন লঙ্ঘন হওয়ার ভয় থাকা সত্ত্বেও মানবিকতার কথা বিবেচনা করে পাক নৌবাহিনীর একটি জাহাজ ভারতীয় নাবিকদের উদ্ধার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। জীবনের কাছে আন্তর্জাতিক সকল আইন তুচ্ছ হয়েছে।

জানা যায়, ভারত মহাসাগরে ভারতের মাছ ধরা একটি জাহাজকে বড় ধরনের বিপদ থেকে উদ্ধার করেছে পাকিস্তানের নৌবাহিনী। জাহাজে থাকা সব নাবিক কর্মচারিকেও উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে পৌঁছে দিয়েছে। উদ্ধারের পর জাহাজে থাকা ভারতীয় নাগরিকরা পাকিস্তান জিন্দাবাদ বলে স্লোগান দেয়।

পাক সূত্র বলছে, ভারতীয় সেই বিপদগ্রস্ত জাহাজটি যখন ভেসে যাচ্ছিল তখন ভারতের নৌবাহিনীর সাহায্য চেয়েও তারা পায় নি। আন্তর্জাতিক সমুদ্র আইন লঙ্ঘন হবার ভয়ে তারা তাদের জাহাজকে উদ্ধার করতেও আসে নি। জাহাজের মানুষগুলোর জীবনের চেয়ে আন্তর্জাতিক সমুদ্র সীমারেখা আইনের প্রাধান্য দিয়ে তারা অমানবিক কাজ করেছে। ইচ্ছে করলেই তারা পাক নৌবাহিনীর সাহায্যের জন্য আবেদন করতে পারতো। কিন্তু তারা তা করে নি।

পাক নৌবাহিনীর মুখপাত্র জানিয়েছেন, ইঞ্জিন নষ্ট হওয়ায় ভারতীয় মাছ শিকারী জাহাজ এসটি মার্চ সাগরের মাঝে পানির স্রোতে ভেসে যাচ্ছিল। আর এ জাহাজের সহযোগিতার জন্য ভারতের অন্য কোন জাহাজও আসছিলো না।

পাক নৌবাহিনীর মুখপাত্র আরো জানান, জাহাজের নাবিকসহ ১২ জন ক্ষুধা পিপাসায় ভুগছিলেন। তাদের অবস্থা ছিল আশংকাজনক। এ পরিস্থিতি দেখে পাকিস্তানের উদ্ধারকারী জাহাজ পিএনএস ‘আলমগির’ মানবতার সেবায় ছুটে যায়।

পাক নৌবাহিনীর মুখপাত্র বলেন, উদ্ধারকারী জাহাজ ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রথমে জাহাজে থাকা মানুষের জরুরী সেবা প্রদান করে। অসুস্থদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। পরে আলমগিরের ইঞ্জিনিয়ার টিম ভারতীয় জাহাজের টেকনিক্যালি সমস্যা সমাধানে কাজ করে। সূত্র: ডেইলি পাকিস্তান

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top