‘কিভাবে ইসলাম অনুসরণ করব, সে সিদ্ধান্ত অন্য সম্প্রদায় নিতে পারে না’

6419bc29175c0c3020af9c9a61207344-5ac25d46ab869-71.jpg

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
: আমেরিকান রাজনীতিবিদ ও নিউইয়র্কের আরব আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক নির্বাহী পরিচালক লিন্ডা সারসোর জানিয়েছেন, কেবল ‘জিহাদ’ শব্দটি ইংরেজি ভাষায় অনুবাদ করার কারণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ছেলে ট্রাম্প জুনিয়র তাকে গ্রেপ্তার করার হুমকি দিয়েছিল।

আমেরিকায় একটি অনুষ্ঠানে ভাষণকালে লিন্ডা এই তথ্য জানান।

লিন্ডা বলেন, ‘জিহাদ শব্দটির ইংরেজি অনুবাদ হচ্ছে ‘সংগ্রাম’। আমি মনে করি, একজন আরবি বক্তা হিসাবে আমার জিহাদ শব্দের অর্থ ব্যাখ্যা করা কর্তব্য।’

পরিবারের সঙ্গে ফিলিস্তিন থেকে আমেরিকায় অভিবাসী হওয়া লিন্ডা জানান, গত বছর তিনি একটি বড় মুসলিম কনভেনশন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। সেখানে তিনি একজন মূল বক্তা হিসেবে বক্তব্য দিয়েছিলেন।

তিনি তার বক্তব্যে প্রিয় নবী মুহাম্মদ (সা.) এর একটি কাহিনীর অবতারণা করেছিলেন। আর সেটি হচ্ছে-একবার জিহাদ এর সর্বোত্তম আকার সম্পর্কে মুহাম্মদ (সা.) কে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল। জবাবে মুহাম্মদ (সা.) বলেছিলেন, ‘জিহাদের সর্বোত্তম রূপ হচ্ছে অত্যাচারী শাসকের কাছে সত্যের একটি শব্দ’।

লিন্ডার বক্তব্য বিকৃত করে কিছু মানুষ তা টুইটারে পোস্ট দিলে তাকে গ্রেপ্তারের দাবি তুলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পুত্র ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র।

লিন্ডা বলেন, ‘মহানবী (সা.) এর এই কাহিনী বলার পর সবাই করতালি দিয়ে বলেছিল, এটা মহান ছিল। আমি কিছু লোকের সঙ্গে আলাপ করার পর বাড়ি ফিরে যাই। পরের দিন আমি ঘুম থেকে জেগে ওঠি দেখি টুইটারে আমাকে ফলো করা হচ্ছে। এতে দেশদ্রোহিতা এবং প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে পবিত্র যুদ্ধের আহ্বান জানানোর অভিযোগে প্রেসিডেন্টের ছেলে ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র আমাকে গ্রেপ্তারের দাবি তুলেন।’

তিনি বলেন, ‘মুসলিম হিসাবে আমরা অন্যান্য সম্প্রদায়কে তাদের ধর্ম কিভাবে অনুসরণ করতে হবে সেসম্পর্কে কখনো বলি না এবং যতদিন পর্যন্ত আমি সহিংসতায় জড়িত না হই বা অন্যান্য সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে সহিংসতাকে উস্কে না দিচ্ছি, ততদিন পর্যন্ত আমি আমার ধর্ম কিভাবে অনুসরণ করব, সে ব্যাপারে আমি অন্যের পছন্দকে গ্রহণ করব না।’

ওয়াশিংটন পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, আমি যেসব লোক ও সম্প্রদায়কে গভীর ভালবাসি তাদের কাছ থেকে কখনো দূরে সরে যাব না। আমি ন্যায়বিচার এবং সকলের জন্য সমতার দাবিতে আমি আমার লড়াই চালিয়ে যাব। কৃষ্ণাঙ্গ সম্প্রদায়ের অধিকার রক্ষা করতে চায় এমন সম্প্রদায়গুলিকে সংগঠিত করতে চাই। মুসলমানদের টার্গেট করে যেসব নীতি প্রণয়ন করা হয়েছে, তা সহ প্রান্তিক নীতির বিরুদ্ধে দাঁড়াতে চাই এবং সমস্ত মানুষের জন্য স্বাস্থ্যের অধিকারকে সমর্থন করি। মতবিরোধ হচ্ছে দেশপ্রেমের সর্বোচ্চ ফর্ম এবং আমি আমার দেশের সমস্ত নাগরিকদের অধিকারের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আমি চুপ থাকবো না।’

সূত্র: সিয়াসাত ডটকম

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top