কক্সবাজার থানা পুলিশের অভিযানে অস্ত্রসহ গ্রেফতার ১২

IMG_20180411_192306.jpg
আবদুর রাজ্জাক:
কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ শহরের বিভিন্ন স্হানে পৃথক অভিযান চালিয়ে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ১টি এলজি বন্দুক, ১ রাউন্ড কার্তুজ,৩টি ছোরা,৩টি লোহার রড ও ৩টি মুখোশসহ ১২ জন বিভিন্ন মামলার পলাতক আসামীকে গ্রেফতার করেছে।মঙ্গলবার(১০ এপ্রিল) সন্ধ্যা ০৮.০০ ঘটিকা হতে বুধবার (১১ এপ্রিল) সকাল পর্যন্ত কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ ফরিদ উদ্দিন খন্দকারের নেতৃত্বে পুলিশের পৃথক দল শহরের ডায়বেটিক পয়েন্টস্থ ডাকাতির প্রস্তুতি গ্রহন কালে অভিযান চালিয়ে অস্ত্র,গুলি,ছোরা,লোহার রড় ও মুখোশসহ তাদের গ্রেফতার করে।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন,জিয়াউর রহমান (৩৮), পিতা- মৃত আমির হামজা, সাং- নতুন মহাল, চৌফলদন্ডী,খাইরুল বশর (৫০), পিতা- মৃত মোঃ তৈয়ব সাং- মধ্যম হ্নীলা,থানা- টেকনাফ, জেলা- কক্সবাজার,সনজয় শর্মা(১৮), পিতা- বংশি শর্মা,মাতা- অবর্চনা শর্মা,সমর ধর (২৩), পিতা- সুকুমার ধর, মাতা- হিরু বীর, উভয় সাং- হাসপাতাল গেইট, পূর্ব কাবল পাড়া, থানা- রামু,জেলা- কক্সবাজার,আতিকুর রহমান, পিতা- হোসাইন, সাং- শাপলাপুর,৯নং ওয়ার্ড, থানা-মহেশখালী,জেলা- কক্সবাজার, খোরশেদ আলম (২০), পিতা- মক্তুল হোসেন, সাং- দক্ষিন চাকমারকুল, মিস্ত্রি পাড়া,থানা- রামু,জেলা-কক্সবাজার, জুয়েল হাওলাদার প্রঃ বাবু প্রঃ ছোট বাবু প্রঃ ছোট জোয়েল (২২), পিতা- মৃত বাবুল হাওলাদার স্থায়ী : (বৈদ্যঘোনা খাজা মঞ্জিল, ০৮নং ওয়ার্ড, থানা- ও জেলা- কক্সবাজার,আল মুবিন (২০), পিতা- জাফর আলম স্থায়ী : গ্রাম- পেশকার পাড়া থানা- ও জেলা- কক্সবাজার,আব্দুল মান্নান (৩৮), পিতা- আবদুর রহমান স্থায়ী : গ্রাম- ঝিলংজা(অংশ) (পূর্ব লারপাড়া) থানা- ও জেলা- কক্সবাজার,তারেকুল ইসলাম (১৯), পিতা- মৃত ইদ্রিস,মোঃ শাহ আলম(২০), পিতা-সৈয়দ আহাম্মদ, উভয় সাং-সিকদার পাড়া, হ্নীলা, থানা-টেকনাফ,জেলা- কক্সবাজার,মোঃ সিরাজ, পিতা- মোঃ শুক্কুর,সাং- জুমছড়ি,পিএমখালী, থানা ও জেলা-কক্সবাজারদের।
গ্রেফতারকৃত আসামী,পলাতক এবং অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে ডাকাতির প্রস্তুতি ও অস্ত্র আইনে পুলিশ বাদি পৃথকভাবে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের মামলা দায়ের করে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করা হয়েছে বলে থানা সূত্রে প্রকাশ।
এব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরিদ উদ্দিন খন্দকার জানান, অব্যাহত অভিযান পরিচালনা করে পরোয়ানাভূক্ত পলাতক আসামী সহ থানা এলাকারছিনতাইকারীদের গ্রেফতার পূর্বক আইনের আওতায় এনে এলাকার জনসাধারন ও পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তার নিশ্চিত করা হবে এবং- চুরি, ছিনতাই ও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে পুলিশি অভিযান অব্যাহত থাকবে।
আপনার মন্তব্য লিখুন
Top