খুলনার নিখোঁজ বিএনপি নেতাকে রামু থেকে উদ্ধার

Presentation1-11.jpg

নিউজ ডেস্ক।। খুলনার ডুমুরিয়া থেকে নিখোঁজ বিএনপি নেতা মো. নজরুল ইসলামকে ১৮ দিন পর কক্সবাজার থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি খুলনা জেলা বিএনপির ধর্মবিষয়ক সহসম্পাদক।

বৃহস্পতিবার সকালে রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের তুলাবাগান এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আফরুজুল হক টুটুল।

এএসপি টুটুল জানান, খুলনার ডুমুরিয়া এলাকা থেকে নিখোঁজ হওয়া স্থানীয় পর্যায়ের এক নেতা রামু উপজেলার তুলাবাগান এলাকায় আত্মগোপনে রয়েছেন বলে বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশের কাছে ফোন আসে। পরে পুলিশের একটি দল তুলাবাগান এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে উদ্ধার করে।

তিনি বলেন, ‘খুনিয়াপালংয়ের পাহাড়ি এলাকার পরিত্যক্ত একটি বাড়ি থেকে বিএনপি নেতা নজরুল ইসলামকে উদ্ধার করা হয়। অভিযানকালে তিনি পরিত্যক্ত বাড়িটির বাইরে ঘুরাঘুরি করছিলেন।’

এএসপি বলেন, উদ্ধার হওয়া বিএনপি নেতাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাকে রামু থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তাকে নিয়ে যেতে খুলনা থেকে পুলিশের একটি দল কক্সবাজারের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে।

খুলনা জেলা বিএনপির ধর্মবিষয়ক সহসম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম মোড়লকে গুম করা হয়েছে দাবি করে ১৮ মার্চ দুপুরে স্থানীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে বিএনপি। ১৭ মার্চ সন্ধ্যায় আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী ডুমুরিয়া উপজেলার আটালিয়া এলাকা থেকে তাকে গুম করেছে বলে দাবি করে। এ ঘটনায় নজরুলের স্ত্রী ডুমুরিয়া থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

ওই সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান জানিয়েছিলেন, বিএনপি নেতা নজরুল ইসলাম মোড়ল ১৭ মার্চ বিকেল ৫টার দিকে ডুমুরিয়া উপজেলার মাগুরঘোনা ইউনিয়নের বেতাগ্রামের নিজ বাড়ি থেকে একই উপজেলার আঠারো মাইল বাজারে যান। সেখান থেকে একটি ভাড়ার মোটরসাইকেল নিয়ে পার্শ্ববর্তী উপজেলা যশোরের কেশবপুরে মঙ্গলকোট এলাকায় ডাক্তার দেখাতে যান। ডাক্তার দেখিয়ে ফেরার পথে সন্ধ্যায় ডুমুরিয়া উপজেলার আটালিয়া এলাকায় স্থানীয়রা দেখতে পান তার ভাড়া করা মোটরসাইকেল, চাবি ও টুপি পড়ে রয়েছে। পরে মোটরসাইকেলের মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে জানা যায়, ওই মোটরসাইকেল নজরুল ভাড়া নিয়েছিলেন। এরপর তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top