‘নির্বাচন ঘোলাটে করতে অস্ত্র এনেছিলেন তাঁরা’

29387154_189423418340226_4255852015223046144_n.jpg

দিসিএম ডেস্ক।। পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলায় ১০টি দেশীয় অস্ত্রসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে কলাপাড়া-কুয়াকাটা মহাসড়কের রজপাড়া বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ জানায়, ২৯ মার্চ অনুষ্ঠেয় কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির লক্ষ্যে ঢাকা থেকে এসব অস্ত্র আনা হয়েছিল।

গ্রেপ্তার হওয়া তিনজন হলেন মাসুম মীর (২৪) এবং তাঁর দুই সহযোগী রুবেল মোল্লা (২২) ও জলিল তালুকদার (২৫)।

কলাপাড়া থানা-পুলিশের একটি সূত্র জানায়, মাসুম মীরের বাড়ি ধানখালী ইউনিয়নের চর-নিশানবাড়িয়া গ্রামে। মাসুম মীর ঢাকা কলেজের অনার্স (ইতিহাস বিভাগ) শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী।

 

ধানখালী ইউনিয়নের একাধিক চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী দাবি করে বলেন, মাসুম মীর ঢাকা কলেজে ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। ধানখালীর নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য তাঁকে কঠোরভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সব রহস্য বের হয়ে আসবে।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলাউদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, ঢাকা থেকে সাকুরা পরিবহনের বাসে করে অস্ত্রগুলো এনে কলাপাড়া-কুয়াকাটা মহাসড়কের রজপাড়া বাসস্ট্যান্ডে নামানো হয়। পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে অস্ত্রসহ মাসুম মীর এবং তার দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। কলাপাড়া থানা-পুলিশ এ ঘটনায় একটি মামলা করেছে।

পটুয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জসীম উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, ২৯ মার্চ অনুষ্ঠেয় কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি করার লক্ষ্যে ঢাকার কারওয়ান বাজার এলাকা থেকে এসব দেশীয় অস্ত্র আনা হয়েছিল। খবর পেয়ে পুলিশ তাঁদের গ্রেপ্তার করে।

আপনার মন্তব্য লিখুন
Top