প্রেমে রাজি না হওয়ায় ছাত্রকে এসিড নিক্ষেপ ছাত্রীর

FB_IMG_1521352028873-1.jpg

জামালপুরে প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক কলেজ ছাত্রের মুখ এডিস দিয়ে ঝলসে দিয়েছে প্রেমপ্রার্থী কলেজছাত্রী। এসিডদগ্ধ কলেজছাত্র মাহমুদুল হাসান মারুফকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ডিএমসি) হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছাত্রী ভাবনা আক্তার রিয়া ও তার মাকে পুলিশ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রের বরাতে পুলিশ সূত্র জানায়, জামালপুর টেকনিকেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ইলেট্রনিক্স টেকনোলজি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র মাহমুদুল হাসান মারুফকে প্রেম প্রস্তাব করেন বাদশা মিয়ার মেয়ে মেলান্দহ ঝাউগড়া বঙ্গবন্ধু কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্রী ভাবনা আক্তার রিয়া। কিন্তু ভাবনার প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করেন মারুফ।
গত ১৫ মার্চ রাত সাড়ে ৯টার দিকে মারুফ ভাবনাদের বাসার সামনে দিয়ে যাবার সময় ভাবনা মারুফকে তাদের বাসায় যেতে বলে। এতে মারুফ রাজি না হওয়ায় রিয়া তার মুখে এসিড ছুড়ে মারে। এসিডে মারুফের মুখমন্ডলসহ কাঁধের কিছু অংশ ঝলসে যায়। পরে এসিডদগ্ধ মারুফকে স্থানীরা জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। তার অবস্থা আশঙ্কা হওয়ায় শুক্রবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে রেফার্ড করেন চিকিৎসকরা। বর্তমানে এসিডগ্ধ মারুফ ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন।
এ ঘটনার পর পুলিশ ভাবনা আক্তার রিয়া ও তার মা হাসি বেগম সুজেদাকে আটক করে। শুক্রবার বিকেলে আটক দুজনকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।
জামালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাছিমুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, এ ঘটনায় মারুফের পিতা দুদু মিয়া বাদী হয়ে শুক্রবার এসিড নিয়ন্ত্রণ আইনে ভাবনা ও তার মাকে আসামী করে মামলা করেছে। তিনি বলেন, তাদের জিজ্ঞাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে। রোববার রিমান্ড আবেদনের শুনানীর দিন ধার্য্য রয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top