কক্সবাজার কলেজের সেই রাস্তার কাজ বন্ধ করে দিল প্রশাসন

Sri-Lanka-3.jpg

দিসিএম

কক্সবাজার সরকারি কলেজের জমি দখল করে তৈরি করা বহুল আলোচিত সেই রাস্তার নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। রোববার কক্সাবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নোমান হোসেন প্রিন্স এক আদেশে কাজ বন্ধ রাখতে প্রকল্পের শেখ ইয়াকুব আলীকে লিখিতভাবে নির্দেশ দিয়েছেন। নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নোমান হোসেন প্রিন্স বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওই আদেশ বলা হয়, কক্সবাজার সরকারি কলেজের ২নং রাস্তা নির্মাণের জন্য কাবিটা প্রকল্প থেকে উপ-বরাদ্দ দেয়া হয়। লিংকরোডের বাসিন্দা শেখ ইয়াকুব আলীকে সভাপতি করে পাঁচ সদস্য প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি করে প্রকল্পটি অনুমোদন দেয়া হয়। কিন্তু অনুমোদন পাওয়ার পর প্রকল্প অফিসকে অবহিত না করে গোপনে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি ভিন্ন জায়গায় রাস্তা নির্মাণ শুরু করে। ওই জায়গা নিয়ে আদালতে মামলা বিচারাধীন রয়েছে এবং ওই জায়গার উপর আদালতের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞাও রয়েছে। তাই ওই জায়গায় রাস্তা নির্মাণ না করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়।

নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নোমান হোসেন প্রিন্স বলেন, প্রকল্পের সভাপতির কাছে কাজ বন্ধ রাখতে লিখিত আদেশ পাঠানো হয়েছে। এরপরও কাজ চালালে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, কক্সবাজার সরকারি কলেজের জন্য ২নং রাস্তা নির্মাণের জন্য সাড়ে ১০লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু নির্দিষ্ট স্থানে রাস্তা নির্মাণ করে কলেজের আওতাভুক্ত বিচারাধীন জায়গার রাস্তা নির্মাণ করছিল প্রকল্প কমিটি। কলেজ কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, এফাজ উল্লাহ নামে এক ব্যক্তির প্লটে যাওয়ার সুবিধার্থে ওই স্থানে রাস্তাটি নির্মাণ করছিল। যা কলেজের কোনো কাজে আসবে না। এই সংক্রান্ত জাতীয় দৈনিকসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে। এই ইস্যুতে প্রতিবাদ করায় ১৭ মার্চ কলেজ ছাত্রলীগের নেতারা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনীন সরওয়ার কাবেরীকে লাঞ্ছিত করেছেন অভিযোগ করেছিলেন তিনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top