লকডাউনে বিয়ে চট্টগ্রামে, বর-কনেকে গুণতে হল ৪০ হাজার টাকা জরিমানা

chittagong-patiya-lockdown-wedding-fined.jpg

আজ শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া ‘কঠোরতম’ লকডাউনের মধ্যেই বসেছিল বিয়ের আসর। সেই আসরও চলছিল ধুমধাম করেই। ছিল প্রীতিভোজের আয়োজনও। স্বাস্থ্যবিধিকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে সবকিছুই যখন মহাসমারোহে চলছিল, তখন তাতে হঠাৎই বাগড়া বসালো উপজেলা প্রশাসন। মুহূর্তে পুরো আয়োজনই পণ্ড হয়ে যায়।

‘কঠোরতম’ লকডাউনের প্রথম দিনেই এই ঘটনা ঘটেছে চট্টগ্রামের পটিয়ায়। সরকারঘোষিত বিধিনিষেধ অমান্য করে বিয়ের আয়োজন করায় বর ও কনের পক্ষের উভয়কে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) দুপুরে পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফয়সাল আহমদ এ অভিযান পরিচালনা করে বিয়ে পণ্ড ও জরিমানা আদায় করেন। এ সময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) নীলুফা ইয়াসমিন, পটিয়া থানা পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত কনের মামা আবদুল মান্নানকে (৫১) ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। তিনি উপজেলার কাশিয়াইশ ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের বুদপুরা এলাকার আবদুল মোতালেবের ছেলে। অপরদিকে বরের চাচাত ভাই মো. কায়েমকে (৩২) ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তিনি একই এলাকার মো. ইউছুফের পুত্র।

এদিকে লকডাউনের প্রথম দিনে পটিয়ার বুধপুরা, বড়লিয়া,জঙ্গলখাইন,উজিরপুর, শান্তির হাট, কাশিয়াইশ নয়া হাট, মনসা ও পটিয়া রেল স্টেশন এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ১০টি মামলায় ১৭ জনকে আরও ২ হাজার ৫০ টাকাসহ মোট ৪২ হাজার ৫০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিষ্ট্রেট ও পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফয়সাল আহমদ জানান, স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ও সরকারি বিধি নিষেধ অমান্য করে বিয়ের আয়োজন করায় বর ও কনের পক্ষকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই উপজেলার বিভিন্ন স্হানে অভিযান চালিয়ে মাস্ক ব্যবহার না করার অপরাধে ৯ জনকে ৪৫০ টাকা জরিমানা করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন