মাদক ব্যবসায়ীদের শিকড় উপড়ে ফেলা হবে : পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান

thecm-10.jpg

ফরহাদ আমিন:

কক্সবাজারের টেকনাফে ‘বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি,নিরাপদ সমাজ গড়ি’ এই শ্লোগান প্রতিষ্ঠায় মাদক ও সন্ত্রাস বিরোধী এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (৯জানুয়ারি)বিকেলে উপজেলার বাহারছড়া শাপলাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে মাদক ও সন্ত্রাস বিরোধী সভায় টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ হাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে শিক্ষক মোহাম্মদ আমিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়।এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান।বিশেষ অতিথি ছিলেন,সহকারী পুলিশ সুপার এএসপি মোহাম্মদ শাকিল আহমেদ।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন,বাহারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ সাইফুল্লাহ কোম্পানী,শাপলাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এমএ মঞ্জুর আলম,বাহারছড়া ইউপি সদস্য ছৈয়দ হোসাইন,সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য আনোয়ারা বেগম,শামলাপুর বায়তুল জন্নাত কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ক্বারী ইউসুফ জামিল প্রমুখ।

ঔই সময় প্রধান অতিথির বক্তব্য,কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান বলেন,জেলায় আমরা নতুনভাবে দায়িত্ব নেওয়ার পর পরিবেশ-পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেছি।দেখছি মাদক কারবারী ও সন্ত্রাসীদের অপতৎপরতা শিথিল হচ্ছে না।তাই আমরা এখন হতে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছি।পুলিশের হাত থেকে মাদক মামলার আসামী ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা খুবই দুঃখজনক।পুলিশ সময় স্বাপেক্ষে এই ন্যাক্কারজনক ঘটনার সমুচিত জবাব দেবে।কোন থানায় টাউট-বাটপার আর দালালদের স্থান হবেনা।থানায় সাধারণ মানুষের সেবা প্রাপ্তি নিশ্চিত করা হবে।থানায় জিডি করতে কোন ধরনের টাকা-পয়সা লাগবেনা।মাদক কারবারী ও সন্ত্রাসীরা দেশ এবং জাতির শত্রু।তাদের কোন প্রকারে ছাড় দেওয়া হবেনা।কোন পুলিশ সদস্য লোভের বশীভূত হয়ে এই অপরাধমূলক পথে পা দিলে কঠোর শাস্তির মুখে পড়তে হবে।

তিনি আরো বলেন, এসব অপরাধীদের তথ্য জানানোর জন্য জেলা পুলিশের বিশেষ সেল রয়েছে। আপনারা এই বিশেষ সেলে সব অপরাধীদের তথ্য দিয়ে সহায়তা করুন।তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে।মাদক কারবারীদের সাথে কোন ধরনের সম্পর্কে জড়াবেন না।ওয়ারেন্টভূক্ত মাদক মামলার পলাতক আসামীদের গ্রেফতারে সকলে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করুন।

আপনার মন্তব্য লিখুন